১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৪ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

ক্যাম্পাস আড্ডায় ক্রিকেট


১৯৭৯ সাল থেকে ক্রিকেটে আসা বাংলাদেশ দল ২০ বছর পর বিশ্বকাপের মাঠে খেলতে নামে। এবারের বিশ্বকাপে পঞ্চমবারের মতো অংশগ্রহণ করছে বাংলাদেশ দল। বিশ্বকাপে বাংলাদেশ অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ডের মাটিতে প্রথম রাউন্ডে লড়ছে। এ নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে বাংলাদেশী ক্রিকেটপ্রেমীদের উত্তেজনা চরমে। দেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীদের আড্ডায় এখন আলোচনার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে ক্রিকেট বিশ্বকাপ।

ব্যাট-বল হাতে একদল তরুণ-তরুণী। পরনে বাংলাদেশের জার্সি। বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় মাঠে ক্রিকেট খেলায় মেতে উঠেছেন তাঁরা। কড়া রোদও যেন তুচ্ছ তাঁদের কাছে। আশপাশের কয়েকজনও যোগ দিয়েছেন এই দলে। বোঝাই যাচ্ছে ক্রিকেট বিশ্বকাপের উন্মাদনা ছড়িয়ে পড়েছে সবখানে। এই তরুণ-তরুণীরা সাভারের গণবিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী। এই দলের একজন সাজিদ। তিনি বলেন, ‘আড্ডা চলছিল ক্রিকেট নিয়ে। বন্ধুরা বলল, চল, ক্রিকেট খেলি। যে-ই কথা সে-ই কাজ। জার্সি, ব্যাট-বল জোগাড় করে খেলা শুরু।’ রোমানা স্মরণের সঙ্গে কথা বলার ফাঁকে জড়ো হলেন তানজিল আহমেদ, সাদমান কবির পরশ ও রকিবুল অভি। ক্রিকেট নিয়ে কথা হচ্ছে দেখে আগ বাড়িয়ে তাঁরাও যোগ দিলেন। জমে উঠল আড্ডা। তাঁরা বললেন, ‘এবারের বাংলাদেশ দল থেকে আমাদের প্রত্যাশা অনেক। আমরা চাই তারা নিজেদের সেরা খেলাটা খেলুক বিশ্বকাপের মাঠে। বাংলাদেশ দল যদি তাদের সেরা খেলাটা খেলে, তাহলে যে কাউকে হারাতে পারবে।’ এবার আড্ডায় যোগ দিলেন নিশি কবির, রৌদ্র সাহা, আল আকসার সাজিদ, রৌদ্র সাহা ও নবনিতা তরফদার। তাঁরা ব্যস্ত খেলোয়াড়দের বন্দনায়। এঁদের কারও পছন্দ সাকিব, আবার কারও মুশফিক, তামিম কিংবা তাসকিন। নিজেদের পছন্দের খেলোয়াড়েরা ম্যাচে কে কী করতে পারেন, এ নিয়ে হিসাব কষছেন তাঁরা।

নিশি কবির বললেন, সাকিব যে সেরা, সেটা বারবার প্রমাণিত হয়। আফগানিস্তানের সঙ্গে ম্যাচেও নিজেকে উজাড় করে খেলেছেন। ভাল রান করেছেন, উইকেটও নিয়েছেন। তাঁর মুখ থেকে কথা কেড়ে নিয়ে নবনিতা তরফদার বললেন, মুশফিকও কম কিসে। সেদিন ৭১ রান করে তো তাক লাগিয়ে দিয়েছেন। এতক্ষণ চুপ থাকা রোমানা স্মরণ এবার কথা বললেন একেবারে বিজ্ঞের মতোই। তাঁর মতে, টিম বাংলাদেশকেই ভাল করতে হবে। তবেই ধরা দেবে আরও সাফল্য। তাঁর কথায় সায় দিলেন সবাই।

আসিফ আল আজাদ