২১ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৭ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

ভারতের নাগাল্যান্ডে সন্দেহভাজন ধর্ষককে পিটিয়ে হত্যা


ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্য নাগাল্যান্ডের বাণিজ্যিক শহর ডিমাপুরের কেন্দ্রীয় জেলে আটক এক সন্দেহভাজন ধর্ষককে বৃহস্পতিবার পিটিয়ে হত্যা করেছে কয়েক হাজার ক্ষুব্ধ লোক। সন্দেহভাজন ওই ধর্ষকের বিরুদ্ধে নাগাল্যান্ডে অনুপ্রবেশেরও অভিযোগ আনা হয়। খবর বিবিসি ও আনন্দবাজার পত্রিকার।

পুরো ভারত যখন ফের নির্ভয়া-তথ্যচিত্রকে সামনে রেখে বিতর্কে জড়িয়ে পড়েছে, ঠিক সেই সময় প্রত্যন্ত উত্তর-পূর্বে ধর্ষণের বিরুদ্ধে এই তীব্র জনরোষ নতুন করে প্রশ্ন তুলেছে। নাগাল্যান্ড পুলিশপ্রধান এল এল ডউঙ্গেল বলেন, বৃহস্পতিবার বিকেলে ডিমাপুরে প্রায় ১০ হাজার মানুষ জেল ভেঙ্গে ভেতরে ঢুকে পড়ে। উত্তেজিত জনতা জেলের মধ্যেই মারতে থাকে ওই ধর্ষককে। জেলরক্ষীরা সংখ্যায় কম থাকায় প্রথমে কিছুই করতে পারেননি। জেল থেকে অভিযুক্তকে নিয়ে তাকে নগ্ন করে শহরের কেন্দ্রস্থল ক্লক টাওয়ারের দিকে রওনা হয় জনতা। গণপ্রহারে মারা যাওয়ার পর তার মৃতদেহ ক্লক টাওয়ারে ঝুলিয়ে দেয় জনতা। এরপর দড়ি ছিঁড়ে পড়ে গেলে দেহটি পুড়িয়ে দেয়া হয়। অসমের পুরনো গাড়ির ব্যবসায়ী সৈয়দ ফরিদ খান (৩৫) নামের ওই ব্যক্তি ২০ বছরের এক নাগা তরুণীকে ২৩ ও ২৪ ফেব্রুয়ারি বিভিন্ন স্থানে নিয়ে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ রয়েছে। ২৫ ফেব্রুয়ারি পুলিশ ওই ব্যবসায়ীকে গ্রেফতার করে নিম্ন-আদালতে হাজির করেন। আদালত তাকে বিচারিক হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেয়। পরে ওই ব্যবসায়ীকে কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়।