১৭ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

অভিজিৎ হত্যার প্রতিবাদে লন্ডনে বিক্ষোভ, মোমবাতি প্রজ্বলন


অমর একুশে বইমেলা থেকে ফেরার পথে লেখক ও বৈজ্ঞানিক অভিজিৎ রায়কে নৃশংস হত্যার প্রতিবাদে লন্ডনের ট্রাফালগার স্কয়ারে রবিববার ‘আই এ্যাম অভিজিৎ এ্যাকশন গ্রুপ লন্ডন’-এর ডাকে বিক্ষোভ মিছিল, প্রতিবাদ সভা ও মোমবাতি প্রজ্বলনের মাধ্যমে শোক প্রকাশ করা হয়েছে।

ন্যাশনাল গ্যালারির সামনে সারিবদ্ধভাবে বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড, হ্যান্ডনোট, ব্যানার নিয়ে মানুষ ‘ও আলোর পথযাত্রী এবং আগুনের পরশমণি’ গানের ভেতর দিয়ে শোক প্রকাশ করে। লন্ডনের বিভিন্ন মুক্ত যুক্তিবাদী ও সামাজিক সংগঠনের মুখপাত্র এ সভায় অংশ নিয়ে সহমর্মিতা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন। ধর্মান্ধতা প্রসূত সাম্প্রতিক উন্মাদনা, বৈশ্বিক অস্থিরতা এবং নিরাপত্তাহীনতায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন সেন্টার ফর সেক্যুলার স্পেসের ডাইরেক্টর গীতা সাইগল। অভিজিতের হত্যাকা-ে ভীত না হয়ে বাংলাদেশের প্রগতিশীল চিন্তার চর্চাকারীদের আরও ঐক্যবদ্ধ ও শক্তি সঞ্চয় করার আহ্বান জানান নারীবাদী গবেষক ও ইউনিভার্সিটি অব ইস্ট লন্ডনের শিক্ষক রুমানা হাশেম। তিনি বলেন, আমরা এখানে শুধু শোক প্রকাশ করতে নয়, দাবি আদায় করতে এসেছি। তিনি বলেন, অভিজিৎ হত্যার বিচারের দায়িত্ব অবশ্যই সরকারকে নিতে হবে। রাজনৈতিক ইসলামকে সরাসরি না বলার জন্য প্রগতিশীলদের মুসলিম কমিউনিটির ভেতরে কার্যক্রম জোরদারের আহ্বান জানান ইরানিয়ান সেক্যুলার সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা ফারিবর্জ প’য়া।

মিছিলে অংশ নেন পাকিস্তানী বংশোদ্ভূত প্রগতিবাদী আলিয়াহ সালিম, ইরানী বংশোদ্ভূত ম্যাগডুলিন আবাইদা, মরোক্কান মানবতাবাদী ও চলচ্চিত্র নির্মাতা ইমাদ ইদাইন হাবিব, ব্রিটিশ-বাংলাদেশী নারিবাদী জরজি ভেমিস, বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত অজন্তা দেব রায়, অনুজিত সরকার, স্মৃতি আজাদসহ বিপুল সংখ্যক মানুষ। যুক্তরাজ্যের সত্যেন সেন স্কুল অব পাফরর্মিং আর্টস, নারী দিগন্ত, এক্সট্রাডাইট মইনুদ্দীনসহ নানান বাঙালী সংগঠন অভিজিৎ রায়ের শোক ও প্রতিবাদ মিছিলে অংশ নিয়ে একাত্মতা প্রকাশ করে। সভায় বাংলাদেশ সরকারের বাক স্বাধীনতা ও জননিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ব্যর্থতার দায় স্বীকার করতেও দাবি জানানো হয়।

-বিজ্ঞপ্তি