২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৭ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

আইএসে যোগ দিয়েছে ১৮ কিশোরীসহ ৬০ ব্রিটিশ নারী


লন্ডনের তিন স্কুলছাত্রীসহ ব্রিটেনের ৬০ জন নারী ও মেয়ে ইসলামিক স্টেট (আইএস) জঙ্গীদের সঙ্গে যোগ দিতে সিরিয়া গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এদের মধ্যে ১৮ জন কিশোরী রয়েছে। ওই তিন ছাত্রীর নতুন সিসি টিভি ফুটেজ প্রকাশের পর এই সংখ্যা জানা গেছে। যুক্তরাজ্যের সন্ত্রাসবিরোধী শীর্ষ পুলিশ কর্মকর্তা এ কথা জানিয়েছেন। খবর গার্ডিয়ান ও বিবিসির।

যুক্তরাজ্যের উপ-সহকারী কমিশনার হেলেন বল বলেছেন, এদের মধ্যে পাঁচজনের বয়স ১৫ থেকে ১৬ বছর। রবিবার বিবিসির এ্যান্ড্রু মার শোতে তিনি বলেছেন, ব্রিটেন থেকে কম বয়সী নারীদের এই বিপজ্জনক সফরের পরিকল্পনা বাড়ার ফলে পুলিশেরও উদ্বেগ বেড়েছে। এদের মধ্যে অনেকে সন্দেহ এড়াতে ছদ্মবেশ নিয়েছে। এটি একটি ক্রমবর্ধমান সমস্যা এবং সত্যই উদ্বেগের। এ সফরে আরও নারীর যোগ দেয়ার ব্যাপারে সতর্ক হতে হবে এবং সবার সম্পর্কে আরও খোঁজখবর নিতে হবে। তিনি আরও বলেন, পুলিশকে নতুন ক্ষমতা দেয়া হয়েছে যে, আইএসে যোগ দিতে সিরিয়া যেতে পারে এমন সন্দেহ হলে তার পাসপোর্ট আটক করতে পারবে। পুলিশ ইতোমধ্যে এ ক্ষমতা ব্যবহার করেছে।

এদিকে এক সিসিটিভি ফুটেজে দেখা গেছে, ব্রিটেনের ওই তিন কিশোরী তুরস্কের ইস্তাম্বুলের বায়রামপাসা বাস স্টেশনে অপেক্ষা করছে। পরদিন তারা চলে যায় সিরিয়ার কাছে সীমান্তবর্তী শহর উরফায়। শামিমা বেগম (১৫), আমিরা আবাস (১৫) এবং খাদিজা সুলতানা (১৬) নামের ওই তিন স্কুলছাত্রী ১৭ ফেব্রুয়ারি ইস্তাম্বুলের উদ্দেশে লন্ডন ছেড়ে যায়। ব্রিটেনের মেট্রোপলিটন পুলিশ ধারণা করছে, পূর্ব লন্ডনের বেথনাল গ্রীন একাডেমির এই তিন ছাত্রী এখন সিরিয়ায় পৌঁছে গেছে এবং আইএস জঙ্গীরা তাদের সেখানে গ্রহণ করেছে। সিসিটিভি ফুটেজ দেখে পুলিশ মনে করছে, তারা ইস্তাম্বুলে ১৮ ঘণ্টার মতো অবস্থান করেছিল। ক্যামেরায় তাদের পাঁচটি ছবি তোলা হয়েছে ১৭ ফেব্রুয়ারি স্থানীয় সময় রাত ৮টা ২৭ মিনিটের পর থেকে পরদিন ১৮ ফেব্রুয়ারি দুপুর ১টা ২২ মিনিট পর্যন্ত সময়ের মধ্যে।