২৫ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ওয়েবসামিট


বিশ্বের সর্বশ্রেষ্ঠ প্রযুক্তি সম্মেলন, ওয়েবসামিট এ বছরের জুনে আয়ারল্যান্ডের ডাবলিন শহরে অনুষ্ঠিত হবে। মাত্র চার বছরে ওয়েবসামিটের এমন বিশাল পরিসরে আয়োজন সত্যিই বিস্ময়কর। ওয়েবসামিটের প্রথম বছর মাত্র ৪০০ প্রযুক্তিবিদ এ আসরে অংশগ্রহণ করেছিলেন। এ বছর প্রযুক্তিবিদদের অংশগ্রহণ দাঁড়াবে আনুমানিক ২২,০০০। এছাড়া বিশ্বখ্যাত ৫০০ আইটি কোম্পানি অংশগ্রহণ করবে এবারের ওয়েবসামিট সম্মেলনে। ফেসবুক, গুগল, কোকাকোলা, নেসপ্রেসোসহ অসংখ্য কোম্পানি নিজেদের মার্কেটিং, কৌশল, বিক্রয় ও যোগাযোগসহ সর্বশেষ প্রযুক্তির ব্যবহার কিভাবে কোম্পানির প্রসারে সহায়ক ভূমিকা পালন করবে, তাই আলোচিত হবে ওয়েবসামিটে। এছাড়া চাকরি প্রার্থীদের জন্য রয়েছে সাক্ষাতকারের বিশেষ ব্যবস্থা। নিজেদের বায়োডাটা জমা দেয়ার পাশাপাশি ভিন্ন কোম্পানির চাকরিও খুঁজে পাবেন ডঊই ঝটগগওঞ হোম পেজে। বর্তমান প্রজন্মের কাছে প্রযুক্তিগত জ্ঞান চাকরির বাজারে প্রধান যোগ্যতা। কারণ প্রযুক্তি পরিবর্তনের সঙ্গেই মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানির চাকরি ও ব্যবসা পরিচালনার ধরন পাল্টে গেছে। প্রতিটি কোম্পানি নিজস্ব কর্মপরিকল্পনায় যোগ করেছে নতুন মাত্রা। তাই বর্তমান প্রজন্মের সকলের উচিত এমন পরিবর্তনশীল বিশ্বের সঙ্গে তাল মিলিয়ে নিজের কর্মক্ষমতায় প্রযুক্তির মতো বিষয় যোগ করা।

বিগত ওয়েবসামিটে অংশ নেয়া বেশকিছু শিক্ষার্থী জানায়, ‘এ ধরনের সামিট আমাদের চাকরি ভবিষ্যত প্রয়োজনীয়তা ও যোগ্যতা অনুধাবনে সহায়তা করে।’

তাছাড়া ওয়েবসামিটে বক্তব্য দিতে আসা একঝাঁক তারুণ্যের উচ্ছ্বসিত আগামীর বার্তা নিজেদের উদ্বুদ্ধ করে। ওয়েবসামিটের টিকেট পেতে অনলাইনে আবেদন করতে পারেন। এছাড়া ওয়েবসামিটের যে কোন সংবাদ কিংবা সে সংশ্লিষ্ট বিষয় জানতে ভিজিট করুণ বিন ংঁসসরঃ. পড়স.

ওয়েবসামিটে বিশ্বের নানা প্রান্ত হতে আসা তরুণরা নিজেদের উদ্ভাবনী নানা প্রযুক্তি জ্ঞান সম্পর্কে বক্তব্য দিতে পারবে বিশ্বের নামকরা সব প্রযুক্তিবিদদের সামনে। ফলে গুণগত ধারণা কেবল বাহবাই কুড়াবে না, জুটে যেতে পারে বিনোয়োগের সম্ভাবনাও। তাই বাংলাদেশী তরুণদের উচিত এমন সম্মেলন সম্পর্কে ধারণা থাকা এবং পরিবর্তনশীল বিশ্বের সঙ্গে খাপ খাইয়ে নেয়া।

ওয়াসিম আকরাম