১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

আন্দোলনের নামে নাশকতা দমনের দায়িত্ব সরকারের ॥ ড. কামাল


স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিশিষ্ট আইনজীবী ও গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন বলেছেন, দেশের রাজনীতিতে রোগ ঢুকেছে। সর্বত্র এই রোগ ছড়িয়ে পড়েছে। অসুস্থ রাজনীতির কারণে সংবিধানের জনমুখী বিধানগুলো কার্যকর করা যাচ্ছে না। এ অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য জনগণের ঐক্য প্রয়োজন। আর এ ঐক্য গড়ার মূল দায়িত্ব সরকারের। যারা আন্দোলনের নামে নাশকতা করছে তাদের দমন করাও সরকারের দায়িত্ব। পাশাপাশি সুশাসনের জন্য জনগণের মতামত নিয়ে রাজনৈতিক ঐকমত্যও জরুরী। ঐক্যের মধ্যে যে শক্তি থাকে তা পারমাণবিক শক্তির মতো। এজন্য চলমান সহিংসতা, আগুন দেয়া অবশ্যই বন্ধ করতে হবে। কিন্তু সরকার যে সুরে কথা বলছে, তাতে কারও সাহায্য তাদের দরকার নেই বলেই মনে হয়।

সোমবার বিকেলে রাজধানীতে জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে ‘স্বাধীনতার পতাকা উত্তোলন দিবস’ উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ড. কামাল এসব কথা বলেন। জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল- জেএসডি এ সভার আয়োজন করে। জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রব এতে সভাপতিত্ব করেন। বক্তব্য রাখেন গণস¦াস্থ্য কেন্দ্রর প্রতিষ্ঠিাতা সভাপতি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী, ডাকসুর সাবেক ভিপি সুলতান মোহাম্মদ মনসুর, নাগরিক ঐক্যের উপদেষ্টা এসএম আকরাম প্রমুখ।

সম্প্রতি তাকে নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পুত্র সজীব ওয়াজেদ জয়ের দেয়া বক্তব্যের প্রতি ইঙ্গিত করে আলোচনা সভায় কামাল হোসেন বলেন, একটা বাচ্চা ছেলে আমার ব্যাপারে কী বলল তাতে কিছু আসে যায় না। এটা নিয়ে মন্তব্য নিস্প্রয়োজন। বরং এ নিয়ে বেশি আলোচনা-সমালোচনায় জনগণের মনোযোগ ঘোরানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। চলমান রাজনৈতিক সঙ্কট কিভাবে নিরসন করা যায়, মূলত সেই বিষয়টি প্রাধান্য পাওয়া উচিত।

চলমান অস্থিরতার জন্য সরকারকে দায়ী করে সভাপতির বক্তব্যে আ স ম আবদুর রব বলেন, দেশে কোন গণতন্ত্র নেই, একতন্ত্র চলছে। সরকারের বিরুদ্ধে কথা বললেই রাষ্ট্রদ্রোহিতার অভিযোগ আনা হচ্ছে। সেই সঙ্গে ক্ষমতায় থাকার জন্য এবং যে কোনভাবে ক্ষমতায় যাওয়ার জন্য আওয়ামী লীগ ও বিএনপি সহিংস সংঘাত সৃষ্টি করছে।