২১ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

কাল আদালতে যাচ্ছেন না খালেদা জিয়া


স্টাফ রিপোর্টার॥ দুর্নীতি মামলায় আদালতে হাজিরা না দেয়ায় বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করলেও আগামীকাল বুধবার বেগম জিয়া আদালতে হাজিরা দেবেন না বলে জানিয়েছেন তাঁর আইনজীবীরা। খালেদা জিয়ার মামলার আইনজীবী সানাউল্লাহ মিয়া জানান, নিরাপত্তাজনিত কারণে বেগম খালেদা জিয়া আদালতে যাচ্ছেন না। তবে বিএনপি চেয়ারপার্সনের প্রেস ইউংয়ের কর্মকর্তা সায়রুল কবির খান বলেন, আগামীকাল খালেদা জিয়ার আদালতের হাজিরার বিষয়ে কোন সিদ্ধান্ত হয়নি। এ বিষয়ে আইনজীবীরা সিদ্ধান্ত নেবেন। গত ২৫ ফেব্রুয়ারি আদালতে হাজির না হওয়ায় খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে বকশিবাজারের অবস্থিত বিশেষ জজ আদালত। এ আদালতে খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে জিয়া অরফানেজ ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার বিচার চলছে। বুধবার পুনরায় এ মামলার শুনানি হওয়ার কথা রয়েছে।

সংগ্রাম কমিটি গঠনের নির্দেশ ॥ রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস প্রতিরোধে দেশের সকল পাড়া মহল্লায় প্রতিরোধ সংগ্রাম কমিটি গঠনের নির্দেশ দিয়েছেন খালেদা জিয়া। সোমবার অজ্ঞাত স্থান থেকে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সালাউদ্দিন আহমেদের নামে আসা বিবৃতিতে এমন তথ্যই জানানো হয়েছে। বিবৃতিতে বলা হয়েছে, রাষ্ট্রের সকল অঙ্গই এখন একীভূতভাবে শাসন বিভাগের অধীনস্থ হয়ে পড়েছে। কার্যত শাসন বিভাগ, আইন বিভাগ ও বিচার বিভাগের আলাদা অস্তিত্ব ও ভারসাম্যতা বিরাজমান নেই। অনিবার্যভাবেই রাষ্ট্রীয় নৈরাজ্যের কবলে নিপতিত হয়েছে দেশ ও জাতি। দেশের সকল স্বাধীনতাপ্রিয় গণতন্ত্রকামী মানুষের ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ সংগ্রামের মধ্য দিয়েই দেশ ও জাতিকে বিপন্ন অবস্থা থেকে মুক্ত করতে হবে।

২০ দলীয় জোটের পক্ষে সালাউদ্দিনের নামে আসা বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে একদলীয় সংসদ, একদলীয় জনপ্রশাসন ও একদলীয় বিচারব্যবস্থা কায়েমের নীল নকশা বাস্তবায়নের লক্ষ্যেই আওয়ামী লীগ প্রহসনমূলক একদলীয় নির্বাচনের আয়োজন করেছিল। প্রজাতন্ত্রের জনগণতান্ত্রিক বৈশিষ্ট ক্ষুণœ হলেই রাষ্ট্রের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব বিপন্ন হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। চলমান গণতান্ত্রিক আন্দোলন কারো ক্ষমতারোহণের আন্দোলন নয়। বেগম খালেদা জিয়া রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস প্রতিরোধে ২০ দলীয় জোটের নেতৃত্বে দেশের সকল পাড়া-মহল্লায় প্রতিরোধ সংগ্রাম কমিটি গঠনের নির্দেশ দিয়েছেন। জনগণের স্বতঃস্ফূর্ত প্রতিরোধের মুখেই অবৈধ লুটেরা সরকারের পতন অনিবার্য উল্লেখ করেন।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: