২১ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

অস্ট্রেলিয়া প্রবাসীদের দুঃখ প্রকাশ


ফজলুল বারী, সিডনি থেকে ॥ মেলবোর্নে শুক্রবার সংঘটিত ঘটনার জন্য লজ্জা, গভীর দুঃখ প্রকাশ ও ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী বাঙালীরা। শনিবার দেশটির বিভিন্ন অংশে বসবাসরত শতাধিক প্রবাসী এক বিবৃতিতে ঘটনার জন্য বাংলাদেশ দল, ক্যাপ্টেন মাশরাফি বিন মর্তুজা, বিসিবি, বাংলাদেশ দলের সব সমর্থক, অনুরাগী এবং দেশবাসীর কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করেন। উল্লেখ্য, শুক্রবার মেলবোর্ন শহরতলীর হান্টিংডেল মসজিদে জুমার নামাজে গেলে এক প্রবাসী বাংলাদেশ দলের ক্যাপ্টেন মাশরাফির সঙ্গে বাক্যবানে চড়াও হন। বিবৃতিতে বলা হয় দেশের কিছু গণমাধ্যমে ঘটনাটি বিকৃতভাবে এসেছে। বিবৃতিতে বলা হয়, শুক্রবার মেলবোর্নে যা ঘটেছে তা নিঃসন্দেহে দুঃখজনক ও অনভিপ্রেত। যে ক্ষোভের বহির্প্রকাশ ঘটেছে তা ভালবাসা থেকে আর ভালবাসার দলের ‘পারসিভড’ ব্যর্থতা জনিত হতাশা থেকেই ঘটেছে বলে আমাদের বিশ্বাস। কিন্তু এই বহির্প্রকাশ আরও অন্যভাবে ঘটানো যেত, অন্য সময় ঘটানো যেত। সবচেয়ে ভাল হতো এই ক্ষোভকে পরামর্শের বা শুভ কামনার আঙ্গিকে বহির্প্রাকাশ ঘটালে। মাশারাফির ওই বিব্র্রতকর পরিস্থিতির অন্য মেলবোর্ন ও অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী অন্য সবার মতো আমরাও দুঃখিত ও ভারাক্রান্ত। ক্রিকেটপ্রেমী অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী বাঙালী হিসেবে দলের কাছে আমাদের নিঃশর্ত এপোলজি। আমাদের বিশ্বাস, যিনি এই ঘটনার সঙ্গে জড়িত এমন অসাবধানী আউটবার্স্টের জন্য তিনি নিজেও বিষণœœ। বিবৃতিতে বলা হয়, দেশের কিছু কিছু সংবাদমাধ্যম এই ঘটনার অতিরঞ্জিত বিবরণ ছেপে মেলবোর্নের বাঙালী কমিউনিটিতে অনিচ্ছাকৃতভাবে হলেও বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে এবং ক্ষোভের ইন্ধন দিচ্ছে। কোন কোন সংবাদ মাধ্যমে বলা হয়েছে ঘটনাটি হাতাহাতির পর্যন্ত গড়িয়েছে, যা একেবারেই অসত্য। এ ধরনের অসত্য, অনুমান নির্ভর ও বিভ্রান্তিকর সংবাদ প্রকাশ না করার জন্য সাংবাদিক বন্ধুদের প্রতি সনির্বন্ধ অনুরোধ জানাচ্ছি। দলের এখন প্রয়োজন আমাদের শুভকামনা এবং উৎসাহ। এসব বিভ্রান্তিমূলক সংবাদে দল ও কমিউনিটির মনোবল ক্ষুণœ হয়। বিবৃতিতে বলা হয় ঘটনাটি ছিল একেবারেই অনিচ্ছাকৃত, অপরিকল্পিত ও তাৎক্ষণিক ভাবাবেগের বহির্প্রকাশ। এটি কোন সংঘবদ্ধ ঘটনা ছিল না। আবারও বলছি, এই ঘটনা অনভিপ্রেত ও অনাকাক্সিক্ষত। আমরা এই ঘটনায় মর্মাহত। দলের কাছে এর জন্য আমরা নিঃশর্ত দুঃখ ও ক্ষমা প্রকাশ করছি। আমরা আমাদের দলককে ভালবাসি। এ বিবৃতিতে বলা হয় আসুন, আমরা এই ঘটনার নিভু নিভু আগুনে জল ঢালি। দয়া করে কেউ এই আগুনে পেট্রোল ঢালবেন না। আনন্দ ও বেদনায় আসুন আমরা ঐক্যবদ্ধ থাকি। কারণ ক্রিকেট ছাড়াত আমাদের ঐক্যের জায়গা তেমন কিছু নেই। বিবৃতিতে স্বাক্ষরদাতাদের মধ্যে রয়েছেন, মেলবোর্ন প্রবাসী ডাঃ আহমেদ শরীফ শুভ, আশরাফুল আলম, তাজউদ্দিন, ইফতি রশীদ, মোর্শেদ কামাল, এ কে এম ইমরান, আজমুল হুদা, তানিম মাহমুদ, নকীব রহমান, মফিজ ঢালি, ক্যানবেরা প্রবাসী মামুনুর রহমান, তাসমিন রহমান, এনামুল ভূঁইয়া মুকুল, তারিক জামান, শাহাদাত মানিক, রওশন আরা, এজাজ মামুন, স্বপ্না শাহনেওয়াজ, সুমন মাহবুব, নাদিমুল হক ম-ল, সিডনি প্রবাসী গামা আব্দুল কাদির, সিরাজুল হক, অধ্যাপক রফিকুল ইসলাম, আনোয়ার চৌধুরী, রবিন বনিক, ড. নূরুর রহমান খোকন, ড. লাভলি রহমান, ড. আব্দুর রাজ্জাক, ড. রোনাল্ড পাত্র, অজয় দাশগুপ্ত, ফজলুল বারী, আল নোমান শামীম, শাহরিয়ার পাভেল, ফারাহ কান্তা, শাহাদাত চৌধুরী, আনিসুর রহমান, অজিত বড়ুয়া, বদিউর রহমান, আবু রেজা আরেফিন, চৌধুরী সুলতানা রাজিয়া, মোঃ মিজানুর রহমান নিশান, হুমায়ুন কবির, রিজু ইমাম, এসএম আমিনুল রুবেল, ফাহাদ আসমার, নাজিম খান, রাব্বিল হাসান, রফিকুল ইসলাম জুয়েল,

ফারজানা জে রিমি, ফারহানা হাসান, হাসিবুল কবির,

শামস রাশেদ জয়, ওয়ারাশেদ রহমান, ওয়াহিদ বাপ্পী, শারমিন নাহার দিনা, দিশা তাসনিম, মোহাইমেন খান মিশু, সায়মা খানম, এলিজা আজাদ, নবেন্দু নির্মল সাহা জয়, মুকিতুল হক, সাদেক দিপু, ব্রিসবেন প্রবাসী শাহেদ সদরুদ্দিন, ড. মোঃ জহিরুল ইসলাম, ফারুক রেজা, এ্যাডিলেড প্রবাসী ড. আবু সিদ্দিক মিয়া, ড. মাহমুদুর রহমান পল্লব, ওয়াসিম সাদেক, ড. আনিস আহমেদ, অজিত দাশ, হাসান ইমাম, ড. সাইফুল ইসলাম, আশরাফ ভূইয়া, নাদিরা সুলতানা, এম ডি ফয়সাল, ড. আহমদ উল্লাহ, ড. মোহাম্মদ ওয়াজিদ, ড. মাহমুদুল হাসান, মাসুদুর রহমান, এস এ রহমান অরুপ প্রমুখ।