২৩ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে জড়িত দলের সঙ্গে সংলাপ করবে না সরকার


বিশেষ প্রতিনিধি ॥ ‘বিএনপি-জামায়াত জোট আন্দোলনের নামে সারাদেশে সন্ত্রাসী কর্মকা- চালাচ্ছে। আর সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালাচ্ছে এমন কোন দলের সঙ্গে সরকার সংলাপে বসবে না।’ জাতিসংঘের মহাসচিব বান কি মুনের কাছে পাঠানো চিঠিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ কথা জানিয়ে দিয়েছেন।

সঙ্কট উত্তরণের জন্য সংলাপের উদ্যোগ নিতে জাতিসংঘ মহাসচিব গত মাসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়ার কাছে চিঠি পাঠান। সম্প্রতি জাতিসংঘ মহাসচিবের দেয়া চিঠির উত্তর দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া। সংশ্লিষ্ট সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

চিঠিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরও বলেন, বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোট দেশের সাধারণ মানুষের ওপর পেট্রোলবোমা হামলা বন্ধ করবে, হরতাল-অবরোধ কর্মসূচী প্রত্যাহার করে দেশে স্বাভাবিক অবস্থা ফিরিয়ে আনবে- এটাই সরকারের প্রত্যাশা। অন্যদিকে বিএনপি চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়া তাঁর চিঠিতে সংলাপের পক্ষে তাঁর দলের অবস্থানের কথা জানিয়েছেন। তবে দেশে চলমান সন্ত্রাসের দায় অস্বীকার করে তিনি বলেছেন, বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোট নয়, অন্য কেউ এই সন্ত্রাস চালাচ্ছে।

এদিকে খালেদা জিয়ার চিঠি জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী মিশন কার্যালয়ের মাধ্যমে মহসচিবের দফতরে পৌঁছানোর বিষয়টি অস্বীকার করেছে স্থায়ী মিশন। জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি ড. একে আবদুল মোমেন জানান, তাদের কার্যালয়ে কোন চিঠি যায়নি। সরাসরি চিঠি পৌঁছেছে কিনা- সে ব্যাপারে তার জানা নেই।

বাংলাদেশের সঙ্কট ইস্যুতে জাতিসংঘ মহাসচিব বান কি মুন সহকারী মহাসচিব অস্কার ফার্নান্দেজ তারানকোকে যে দায়িত্ব দিয়েছেন সে কথাও উল্লেখ ছিল তার চিঠিতে। ঢাকার সংবাদমাধ্যমগুলোতে তারানকোর ঢাকা আসার প্রস্তুতি প্রসঙ্গে ড. মোমেন জানান, গত কয়েক দিনে তার সঙ্গে তারানকোর প্রায় প্রতিদিনই দেখা ও কথা হয়েছে। তবে বাংলাদেশ সফর নিয়ে এ পর্যন্ত তিনি কোন কথাই বলেননি। তারানকোর ভেতরে কোন তাড়াহুড়া দেখছি না। ড. মোমেন বলেন, এর আগেও তারানকো যখনই বাংলাদেশ সফর করেছেন, আগেই স্থায়ী মিশনকে আনুষ্ঠানিকভাবে জানিয়েছেন, মিশনের মাধ্যমে সরকারের অনুমতি নিয়েছেন। আশা করছি এবারও তার ব্যত্যয় হবে না।

সরকারের সন্ত্রাসবিরোধী অবস্থান জাতিসংঘকে সুস্পষ্টভাবে জানিয়ে দেয়া হয়েছে বলেও জানান ড. মোমেন। তিনি বলেন, আমরা জাতিসংঘের কাছে দেশে বিএনপি-জামায়াতের চলমান সন্ত্রাসী তৎপরতার কথা স্পষ্টভাবেই তুলে ধরেছি। সন্ত্রাস করছে এমন কোন দলের সঙ্গে সংলাপ হবে না বলেও জানিয়েছি। ড. মোমেন জানান, বাংলাদেশ সরকারের এ অবস্থানের পক্ষে যুক্তরাষ্ট্রের কোন দ্বিমত নেই। সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চললে সংলাপ অসম্ভব- এটাই যুক্তরাষ্ট্রের মত। বাংলাদেশের সমস্যা অভ্যন্তরীণভাবে সমাধান হবে- এমন প্রত্যাশাই ব্যক্ত করছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে কোন সহযোগিতা চাইলে দিতে প্রস্তুত। কোন সহযোগিতা চাওয়া হচ্ছে কিনাÑ এমন প্রশ্নের জবাবে ড. আব্দুল মোমেন বলেন, এখনও সরকারের পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে সহযোগিতা চাওয়ার বিষয়ে কোন ইঙ্গিত নেই।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: