২১ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বাউফলে সাত স্লুইস গেট কৃষকের কোন উপকারে আসছে না


নিজস্ব সংবাদদাতা, বাউফল, ২৬ ফেব্রুয়ারি ॥ বাউফলে ৭টি সøুইজ গেট এখন কৃষকের মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। স্থানীয় প্রভাবশালীরা সøুইস গেটের কপাট আটকে দিয়ে মাছের চাষ করায় তা কৃষকের কোন উপকারে আসছে না। জানা গেছে, উপজেলার চন্দ্রদ্বীপের চর মিয়াজান, আদাবাড়িয়ার হাজিরহাট, ছোনখোলা, নওমালার মৈশাদি, বগা, শৌলাও কাশিপুর খালের মুখে ১৯৯০ ও ১৯৯৭ সালের দিকে সাড়ে আট কোটি টাকা ব্যয়ে পটুয়াখালী পানি উন্নয়ন বোর্ড এ স্লুইস গেটগুলো নির্মাণ করে। স্থানীয় প্রভাবশালীদের কাছে সøুইস গেটের চাবি থাকায় তারা ইচ্ছেমতো তা ব্যবহার করছেন। কেউ কেউ সøুইস গেটের কপাট বন্ধ রেখে খালে মাছ চাষ করছেন। ফলে প্রয়োজনের সময় কৃষকরা সুবিধা ভোগ করতে পারছে না। বরং বছরের পর বছর সøুইস গেটগুলোর কপাট বন্ধ থাকায় তাদের দুর্ভোগ পোহাতে হয়। জমি চাষের জন্য জোয়ারের পানি তারা ব্যবহার করতে পারছে না। আবার বর্ষা মৌসুমে পানি অপসরণ না হওয়ায় জমিতে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। নিয়মানুযায়ী এসব স্লুইসগেট অপারেট করার জন্য পানি উন্নয়ন বোর্ডের একজন চাবি অপারেটর থাকার কথা। কিন্তু তা নেই। এ বিষয়ে পটুয়াখালী পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো)-উপবিভাগীয় প্রকৌশলী মোঃ নজরুল ইসলাম বলেন, স্লুইচগুলো অপারেট করার জন্য সুইচ অপারেটর ছিল। সরকার তা বন্ধ করে দেয়। জনবল সঙ্কটের কারণে যথাযথ রক্ষণাবেক্ষণ করা যাচ্ছে না। তাই এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিদের হাতে ওই স্লুইস গেটের চাবি দেয়া হয়। তারা ইচ্ছেমতো সøুইসগেটগুলো ব্যবহার করায় এ সমস্যার সৃষ্টি হয়েছে। তিনি বিষয়গুলো খতিয়ে দেখার আশ্বাস দেন।