১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ২ আশ্বিন ১৪২৬, মঙ্গলবার, ঢাকা, বাংলাদেশ
 
সর্বশেষ

জরিমানার কবলে এল আর গ্লোবাল

প্রকাশিত : ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ এ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি এল আর গ্লোবাল আগামী এক বছরের জন্য কোন ধরনের বিনিয়োগ স্কিম ও ফান্ড গঠন করতে পারবে না। পাশাপাশি কোম্পানিটিকে শাস্তিস্বরূপ ৫০ লাখ টাকা জরিমানা করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

পাশাপাশি কোম্পানি এবং এর পরিচালনা পর্ষদকে নিজস্ব অর্থায়ন থেকে অনিয়মে জড়িত ১০১ কোটি ৮৩ লাখ ৮৯ হাজার ৯১০ টাকা আগামী ৩০ জুন, ২০১৫ এর মধ্যে সংশ্লিষ্ট ফান্ডগুলোতে ফেরত দেয়ার নির্দেশ দিয়েছে বিএসইসি।

সিকিউরিটিজ আইন এবং মিউচ্যুয়াল ফান্ড বিধিমালা ভঙ্গ করে সাধারণ বিনিয়োগকারীদের টাকা নিয়ে গঠিত ফান্ডের অর্থ নিজেদের স্বার্থে ব্যবহার করার কারণে কোম্পানিটিকে এ নিষেধাজ্ঞা ও জরিমানা করা হয়েছে।

এর পাশাপাশি আইন লঙ্ঘনে সহায়তা করায় ট্রাস্টি বাংলাদেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানিকে (বিজিআইসি) ২৫ লাখ টাকা এবং নিরীক্ষক হুদা ভাসি এ্যান্ড কোম্পানিকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। কাস্টডিয়ান স্ট্যান্ডার্ড চাটার্ড ব্যাংকেও এ ব্যাপারে সতর্কতাপত্র দেয়া হয়। গত বুধবার বিএসইসি’র ৫৩৯তম কমিশন সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

জানা যায়, সম্পদ ব্যবস্থাপক এল আর গ্লোবাল বিএসইসি’র অনুমোদনহীন কয়েকটি প্রাইভেট কোম্পানির প্রাইভেট ইক্যুইটিতে বিনিয়োগের নামে মোট ৯৫ কোটি ৫৮ লাখ ২৭ হাজার টাকা বিনিয়োগ করেছে। আর ২০১৪ সালের ৩০ জুন সমাপ্ত অর্থবছরের হিসাব শেষে ওই চারটি কোম্পানিতে মোট বিনিয়োগ স্থিতির পরিমাণ ছিল ৪৮ কোটি ৫৬ লাখ ৮০ হাজার ৫০০ টাকা।

এমনকি সম্পদ ব্যবস্থাপক কোম্পানিটি ব্যবস্থাপনা ফি হিসাবে ফান্ডগুলো থেকে অতিরিক্ত অর্থ আদায় করেছে। কোম্পানিটি ব্যবস্থাপনা ফি হিসাবে প্রাপ্য খরচের তুলনায় অতিরিক্ত প্রায় ৫ কোটি ৯৪ লাখ টাকা আদায় করায় ফান্ডগুলো আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়।

এর বাইরে অভিযোগ নিষ্পত্তিতে ও মামলা সংক্রান্ত কাজে প্রতিটি ফান্ড থেকে আনুপাতিকহারে অতিরিক্ত ৩১ লাখ ৬২ হাজার ৯১০ টাকা আদায় করে কোম্পানিটি। এ ছয়টি ফান্ড হচ্ছে, ডিবিএইচ ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড, গ্রীন ডেল্টা মিউচ্যুয়াল ফান্ড, এল আর গ্লোবাল বাংলাদেশ মিউচ্যুয়াল ফান্ড, এআইবিএল ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড, এমবিএল ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড, এনসিসিবিএল মিউচ্যুয়াল ফান্ড-১।

অপরদিকে, ঘন ঘন ব্যাংক হিসাব পরিবর্তন করে এফডিআরের টাকা উচ্চ সুদের হিসাব থেকে সরিয়ে নিম্ন সুদের ব্যাংক হিসাবে স্থানান্তর করে ফান্ডকে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে কোম্পানিটি। এমনকি সমজাতীয় ব্যাংক হিসাবে জেনেশুনে কম সুদের হারের হিসাবে এফডিআর করে ফান্ডগুলোকে ক্ষতিগ্রস্ত করে এ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট এ কোম্পানিটি।

এ্যাসেট ম্যানেজারের এ অপরাধে ট্রাস্টি সমানভাবে দায়ী থাকায় ট্রাস্টি হিসাবে দায়িত্ব পালনকারী বাংলাদেশ জেনারেল ইন্স্যুরেন্স কোম্পানিকেও ২৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। অফিস ও ব্যবস্থাপনা খরচের অবৈধ হিসাবকে ক্লিন রিপোর্ট দেয়ায় কোম্পানির অডিটর হুদা ভাসি এ্যান্ড কোম্পানিকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

প্রকাশিত : ২৭ ফেব্রুয়ারী ২০১৫

২৭/০২/২০১৫ তারিখের খবরের জন্য এখানে ক্লিক করুন


শীর্ষ সংবাদ:
বিভাগীয় শহরে ক্যান্সার হাসপাতালসহ ৮ প্রকল্প অনুমোদন || আমরা ট্রেনকে ১৬ কোটি মানুষের চাহিদার শীর্ষে আনতে চাই ॥ রেলপথমন্ত্রী || প্রধানমন্ত্রী পণ্যের দাম নির্ধারণে সতর্ক হওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন ॥ পরিকল্পনামন্ত্রী || রোহিঙ্গাদের এনআইডি ॥ ইসিকর্মীসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা || ঢাকায় কর্মরত বিদেশি প্রকৌশলীর মৃত্যু || ‘যোগাদানে বাধা নেই’ ভিকারুননিসার নতুন অধ্যক্ষের || এক ঘণ্টা পর ঢাকা-ময়মনসিংহ রুটে ট্রেন চলাচল শুরু || বছিলায় জঙ্গি আস্তানা ॥ তদন্ত প্রতিবেদন ১৭ অক্টোবর || কুড়িয়ে পাওয়া অর্থ ফেরত দিয়ে ইতালিতে আলোচনায় বাংলাদেশি তরুণ || রিজার্ভ চুরি মামলার প্রতিবেদন ২০ অক্টোবর ||