১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

সন্ত্রাসে সমর্থন দিচ্ছে অনেক অস্ট্রেলীয় নারী


৪০ জনেরও বেশি অস্ট্রেলীয় নারী সন্ত্রাসী হামলায় অংশ নিচ্ছে বা জঙ্গী গোষ্ঠীগুলোকে সমর্থন করছে বলে জানিয়েছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী জুলি বিশপ। বৃহস্পতিবার অস্ট্রেলীয় পার্লামেন্টের এক অধিবেশনে তিনি এসব কথা বলেছেন। খবর বিবিসির।

পার্লামেন্টকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, ইসলামিক স্টেট’র (আইএস) হয়ে লড়াইরত স্বামীর সঙ্গে যোগ দিতে বা একজন জঙ্গীকে বিয়ে করতে সিরিয়া ও ইরাকে অস্ট্রেলীয় নারীদের যাওয়া ক্রমাগত বাড়ছে। বহু অস্ট্রেলীয় নাগরিক আইএস’এ যোগ দিয়েছে বলে ধারণা করা হয়। যারা ফিরে আসছেন ও তাদের যারা সমর্থন দিচ্ছেন, এদের সবাইকে নিয়ে অভ্যন্তরীণ নিরাপত্তার বিষয়ে ভীষণ উদ্বিগ্ন হয়ে আছেন অস্ট্রেলীয় কর্মকর্তারা। জুলি জানিয়েছেন, যেসব নারীর কথা জানা গেছে তাদের সংখ্যা সিরিয়া ও ইরাকের সব বিদেশী যোদ্ধাদের প্রায় পাঁচ ভাগের এক ভাগ। তিনি বলেছেন, হত্যা ও মৃত্যুদণ্ড যথেষ্ট মনে না হওয়ায়, ধর্ষণ ও নারীদের প্রহার করাসহ যৌন ক্রীতদাসত্বের নির্দেশনা প্রকাশ করেছে দায়েশ (আইএস)।

পাকিস্তানে চার আল কায়েদা সন্ত্রাসীর মৃত্যুদ-

পাকিস্তানে একটি সন্ত্রাসবিরোধী আদালত বুধবার কারারক্ষী হত্যা মামলায় নিষিদ্ধ আল কায়েদা সংগঠনের চার সন্ত্রাসীকে মৃত্যুদ-, ২১ জনকে যাবজ্জীবন ও এক কোটি আট লাখ রুপী জরিমানা করেছে। ২০১২ সালের ১২ জুলাই লাহোরে রাসুল পার্কে কারারক্ষী হোস্টেলে মৃত্যুদ-প্রাপ্ত আফজাল, আবদুল হাফিজ, জুলফিকার ও কেরামত হামলা চালায়। এতে খাইবার পাখতুনখোয়ার প্রশিক্ষণরত ১০ কারারক্ষী নিহত ও সাতজন আহত হয়। হামলার এক বছর পর ভারি গোলাবারুদসহ মিনার ই-পাকিস্তান থেকে তাদের আটক করা হয়। অস্ত্র মামলাতেও তাদের দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে। -ডন