১৮ নভেম্বর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৮ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

নিজেদের মাটিতেও কিউইরা ঠেকাতে পারবে না ॥ ফিঞ্চ


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ দুই ম্যাচ হয়ে গেছে। প্রথম ম্যাচে ইংল্যান্ডকে ১১১ রানে বিধ্বস্ত করে দারুণভাবেই শুরু করেছিল হট ফেবারিট অস্ট্রেলিয়া। তবে দুর্ভাগ্যের শুরু হয়েছে তাদের জন্য। অঝোর বৃষ্টি, বৈরী প্রকৃতি ও ঝড় তাদের কাছ থেকে উড়ে নিয়ে গেছে ১ পয়েন্ট। দ্বিতীয় ম্যাচে ব্রিসবেনে এসব কারণে খেলাই হয়নি, ফলে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ম্যাচ পরিত্যক্ত হয়। এবার বিশ্বকাপে সবচেয়ে কঠিন পরীক্ষা এখন অসিদের সামনে। চলতি একাদশ আসরের আয়োজক যৌথভাবে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড। তবে কিউইদের বিরুদ্ধে তাদের মাঠেই নামতে হবে অসিদের। শনিবার অকল্যান্ডে ট্রান্স-তাসমান চিরশত্রু নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে অকল্যান্ডে শক্তি পরীক্ষা তাদের। এবার দু’দলই শিরোপা জয়ের অন্যতম ফেবারিট। টানা তিন ম্যাচ বেশ সহজেই জিতে দারুন ছন্দে আছে নিউজিল্যান্ড। তাদের মাটিতে অসিদের পতন ঘটবেÑ এমনটাই মনে করছেন অনেকে। তবে ইনফর্ম অসি ওপেনার এ্যারন ফিঞ্চ মনে করছেন এমন শঙ্কার কোন কারণ নেই। নিউজিল্যান্ডের মাটিতেও অসিরাই উজ্জীবিত নৈপুণ্য দেখাবে।

নিউজিল্যান্ডের এবার বিশ্বকাপ অভিযানটা দারুণভাবে শুরু হয়েছে। এখন পর্যন্ত তিন ম্যাচে তারা শ্রীলঙ্কা, স্কটল্যান্ড ও ইংল্যান্ডকে হারিয়েছে বেশ সহজেই। আর একটি ম্যাচ জিতলেই সবার আগে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত হবে তাদের। পরবর্তী ম্যাচে তাদের প্রতিপক্ষ প্রবল প্রতিপক্ষ ও এবার বিশ্বকাপের অন্যতম হট ফেবারিট সহ-আয়োজক অস্ট্রেলিয়া। তবে কিউইদের জন্য সুখের বিষয় হচ্ছে নিজেদের মাঠেই অসিদের মোকাবেলায় নামতে পারবে তারা। আর অসিরা দুই ম্যাচের একটিতে খেলতেই পারেনি। ইংলিশদের ১১১ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়ে দারুণ শুরুর পর ব্রিসবেনে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে এক পয়েন্ট হারিয়েছে তারা। বৃষ্টির কারণে পরিত্যক্ত হয়েছে ম্যাচটি। সার্বিকভাবে এখন পর্যন্ত নিউজিল্যান্ডই সবচেয়ে ভাল অবস্থানে আছে চলতি বিশ্বকাপে। এবার অসিদের তাই কঠিন পরীক্ষায় অবতীর্ণ হতে হবে। অনেকেই মনে করছেন এবার পরাজয় দেখবে অসিরা। কারণ মাঝে প্রায় দুই সপ্তাহ মাঠে নামতে পারেনি তারা। তবে ওপেনার ফিঞ্চ নিজ দলকে নিয়ে দারুণ আত্মবিশ্বাসী। তিনি বলেন, ‘আমরা ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে দারুণ এক ম্যাচ খেলে যাচ্ছি সেখানে। এখন পর্যন্ত আসলে দলের মধ্যে কোন সমস্যা দেখিনি। আমরা এই বড় বিরতির মধ্যে অনেক ভাল অনুশীলন করেছি। গত শনিবার যখন খেলার কথা ছিল সেদিনও খুব ভাল একটি সেশন কাটিয়েছি। আমরা খুব ভাল বোধ করছি এবং সামনে এগিয়ে যাওয়ার জন্য প্রস্তুত আছি।’

২০১৩ সালের জানুয়ারিতে অভিষেক হওয়ার পর এখন পর্যন্ত আশ্চর্যজনকভাবে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে কোন ওয়ানডে খেলা হয়নি ফিঞ্চের। এখন পর্যন্ত ৪২ ওয়ানডে খেলেছেন তিনি। তবে এর মূল কারণ হচ্ছে ২০১১ বিশ্বকাপের পর নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে আর কোন ওয়ানডেই খেলেনি অসিরা। তবে ২০১৩ সালে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে ম্যাচ থাকলেও বৃষ্টির কারণে তা পরিত্যক্ত হয়। এবার বিশ্বকাপ মঞ্চে কিউইদের বিরুদ্ধে প্রথমবার নামার সুযোগ ফিঞ্চের। ২৮ বছর বয়সী এই ওপেনার প্রথম ম্যাচে ১৩৫ রানের দুর্দান্ত একটি ইনিংস উপহার দিয়েছিলেন। তবে দুই কিউই পেসার টিম সাউদি ও ট্রেন্ট বোল্টের দারুণ প্রশংসা করেছেন তিনি। নতুন বলে তাঁদের বিরুদ্ধেই খেলতে হবে ফিঞ্চকে। তিনি বলেন, ‘ইনিংসের প্রথমদিকে তাঁদের বোলিং সত্যি অসাধারণ। আমি এবং ওয়ার্নার চেষ্টায় থাকব তাঁদের সাবলীলভাবে মোকাবেলা করতে। দু’দলের লড়াই হবে মেধা ও কৌশলের। আর সেক্ষেত্রে আমরাই ভাল করব। অস্ট্রেলিয়ার অগ্রযাত্রা আটকানো যাবে না।’

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: