১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

পর্যালোচনা প্রতিবেদনের সময় বাড়ল


অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ জাতীয় বেতন কমিশনের সুপারিশ বাস্তবায়নের পদ্ধতি নির্ধারণে পর্যালোচনা প্রতিবেদন দেয়ার সময় এক মাস বাড়ানো হয়েছে।

মন্ত্রিপরিষদ সচিবকে আহ্বায়ক করে পাঁচ সদস্যের কমিটিকে ছয় সপ্তাহের সময় দেয়া হয়েছিল। গত ৩১ ডিসেম্বর ওই কমিটি গঠন করা হয়। সে অনুযায়ী ১১ ফেব্রুয়ারি ছিল প্রতিবেদন জমা দেয়ার শেষ দিন। কিন্তু পরবর্তী সময়ে কমিটি সময় বাড়ানোর আবেদন করে। তাঁদের আবেদনের প্রেক্ষিতে চার সপ্তাহ বা ১ মাস সময় বাড়ানো হয়েছে। অর্থ মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে ।

প্রসঙ্গত, গত ২১ ডিসেম্বর অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের কাছে বেতন কমিশনের প্রতিবেদন তুলে দেন ‘জাতীয় বেতন ও চাকরি কমিশন-২০১৩।’ এর চেয়ারম্যান ছিলেন ড. মোহাম্মদ ফরাসউদ্দিন। প্রতিবেদন পর্যালোচনা কমিটির সদস্যদের মধ্যে রয়েছেন অর্থ বিভাগের সিনিয়র সচিব, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সিনিয়র সচিব, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব, প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব এবং গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ের সচিব। অর্থ বিভাগ কমিটিকে সাচিবিক সহায়তা দিচ্ছে।

এছাড়া এই কমিটি ‘সশস্ত্রবাহিনী বেতন কমিটি- ২০১৩’-এর প্রতিবেদনও পর্যালোচনা করে প্রয়োজনীয় সুপারিশ দেবে।

সরকারী ১৩ লাখ কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য প্রস্তুত করা বেতন কমিশন প্রতিবেদনে সর্বনিম্ন ধাপের মূল বেতন ৮ হাজার ২০০ টাকা আর সর্বোচ্চ ধাপে (১ নম্বর) ৮০ হাজার টাকার সুপারিশ করেছে। প্রস্তাবিত অষ্টম বেতন কাঠামোতে বর্তমানের ২০টির জায়গায় ১৬টি গ্রেড রাখা হয়েছে। প্রতিবেদন পেশের দিনই অর্থমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, নতুন বেতন কাঠামো ১ জুলাই থেকে কার্যকর হবে। এ জন্য আগামী ২০১৫-১৬ অর্থবছরের বাজেটে অতিরিক্ত প্রায় ২২ হাজার কোটি টাকার বরাদ্দ রাখবে সরকার।