২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

টানা হরতাল-অবরোধে সামাজিক অনুষ্ঠানেও ভাটা


স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর ॥ হরতাল-অবরোধের কারণে দিনাজপুরে সামাজিক অনুষ্ঠানেও ভাটা পড়েছে। বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের ডাকা চলমান হরতাল-অবরোধে জেলার বিনোদন কেন্দ্রগুলোতেও পড়েছে প্রভাব।

সাধারণত শীতের শেষ দিকটা বিনোদন ও সামাজিক কেন্দ্রগুলোর জন্য ভরা মৌসুম। গায়ে হলুদ, বিয়ে, আকিকা, খাৎনা, মেজবানসহ বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়ে থাকে এই সময়। কিন্তু হরতাল-অবরোধে নিরাপত্তার আশঙ্কায় অনেকেই এখন সামাজিক কেন্দ্রগুলোতে যাচ্ছেন না। অনেকেই বুকিং দেয়া কর্মসূচীও বাতিল করে দিচ্ছেন। ফলে কমিউনিটি বা পার্টি সেন্টার ও বিনোদন কেন্দ্রগুলোর মালিক ও কর্মকর্তা-কর্মচারীরা আর্থিকভাবে ক্ষতির শিকার হচ্ছেন। এলাকাভিত্তিক কিছু সেন্টারে অনুষ্ঠান আয়োজন হতে দেখা গেলেও সেখানে কাক্সিক্ষত অতিথিরা আসছেন না। আর যারা অনুষ্ঠান আয়োজন করছেন, তারাও অতিথিদের নিরাপত্তা নিয়ে শঙ্কায় থাকছেন। শহরের চুড়িপট্টি মহল্লার ‘উৎসব’ কমিউনিটি সেন্টারের মালিক সারওয়ার জাহান বাবু বলেন, ‘ভরা মৌসুমেও বুকিং পাচ্ছি না। অথচ এ সময় আমরা পার্টি সামলাতে হিমশিম খাই। ডিসেম্বর মাসের তুলনায় জানুয়ারিতে ৮০ ভাগ কম বুকিং পেয়েছি। ফেব্রুয়ারি মাসে তিন থেকে চারটি বুকিংও হয়নি। সব মিলিয়ে মাসে ১ থেকে ৩ লাখ টাকার ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছি।’

বাসুনিয়াপট্টি মহল্লার ‘পার্টি সেন্টার’ কমিউনিটি সেন্টারের মালিক মহবুল ইসলাম বলেন, ‘বুকিং নেই। অলস সময় কাটাচ্ছি। ছোট-খাটো দু’একটি অনুষ্ঠানের বুকিং হলেও তা বাতিল করে দিচ্ছে। কর্মচারীদের বেতন-ভাতা দিতে পারছি না।’ স্টেশন ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির বলেন, ‘রাজনৈতিক অস্থিরতার কারণে কেউ এখন কমিউনিটি সেন্টারের দিকে ঝুঁকছেন না। অথচ অন্যান্য বছর এই সময় জেলার কমিউনিটি সেন্টারগুলোতে বুকিংয়ের হিড়িক থাকত।’

হরতাল-অবরোধে ‘ফার্নসিটি’ শিশু পার্কে গিয়ে দেখা গেছে, কোন কোলাহল নেই। কর্মকর্তারা জানান, অবরোধে কেউ ঝুঁকি নিয়ে বাসা থেকে বের হতে চান না। এ জন্য দর্শনার্থীদের সংখ্যা একেবারেই কম।’