১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

রায়েরবাজারে আরও একটি কবরস্থান হচ্ছে


সংসদ রিপোর্টার ॥ ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের আওতাধীন রাজধানীর রায়েরবাজারে আরও একটি কবরস্থান করা হচ্ছে। এটি হবে দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে সর্ববৃহৎ কবরস্থান। সংসদে এসব তথ্য জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। সোমবার বিকেলে জাতীয় সংসদে এম আবদুল লতিফের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ তথ্য জানান।

মন্ত্রী জানান, রাজধানীর রায়েরবাজারের কবরস্থানটিতে লক্ষাধিক কবর সংস্থানের সুযোগ রয়েছে। কবরস্থানটি নির্মাণ করতে ৫৪৪ কোটি ৩৬ লাখ টাকা ব্যয় করা হচ্ছে। চলতি বছরের জুন মাসের মধ্যেই এ প্রকল্পের কাজ শেষ হবে। অপর এক প্রশ্নের জবাবে এলজিআরডি মন্ত্রী জানান, শহর এলাকায় পাবলিক টয়লেটের সংখ্যা চাহিদার তুলনায় অপ্রতুল এবং বিদ্যমান অনেক পাবলিক টয়লেট ব্যবহার অনুপযোগী। এছাড়া দুর্বল ব্যবস্থাপনা ও কারিগরি সীমাবদ্ধতার কারণে এগুলো নারী ও প্রতিবন্ধীবান্ধব নয়।

এ অবস্থা থেকে উত্তরণের লক্ষ্যে স্থানীয় সরকার বিভাগের উদ্যোগে ঢাকা শহরে স্যানিটেশন চাহিদা মেটানো এবং সামগ্রিক জনস্বাস্থ্যের উন্নতিকল্পে নারী-পুরুষ ও প্রতিবন্ধীদের জন্য পৃথক পৃথক ব্যবস্থা রেখে ঢাকা শহরে পাবলিক টয়লেটগুলো মেরামত, পুনর্নির্মাণ ও সম্ভাব্য নতুন স্থলে নতুন টয়লেট নির্মাণের জন্য ঢাকা উত্তর-দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন, ঢাকা ওয়াসা ও বেসরকারী সংস্থা ওয়াটার এইড বাংলাদেশের সঙ্গে সমঝোতা স্বাক্ষর হয়েছে। বর্তমানে ঢাকা শহরে ৩০টি অত্যাধুনিক পাবলিক টয়লেটের নির্মাণ কাজ চলছে।

সংসদ সদস্য সেলিম উদ্দিনের প্রশ্নের জবাবে সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম আরও জানান, একটি বাড়ি একটি খামার প্রকল্প বর্তমানে দেশের সকল উপজেলার সকল ইউনিয়নের প্রতিটি ওয়ার্ডে একটি করে মোট ৪০ হাজার ৫২৭টি গ্রামে বাস্তবায়িত হচ্ছে।