২২ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

এসএসসি পরীক্ষা দিতে পারছে না ফেনীর অনিক আর হৃদয়


ওছমান হারুন মাহমুদ, ফেনী, ১১ ফেব্রুয়ারি ॥ চলতি এসএসসি পরীক্ষা নিয়ে যখন সহপাঠী বন্ধুরা ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছে তখন বোমা হামলার শিকার হয়ে হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে সময় পার করছে অনিক আর হৃদয়ের মতো আরও ক’ শিক্ষার্থী। নিষ্ঠুর বোমাবাজরা কেড়ে নিয়েছে তাদের জীবন থেকে একটি বছর। ফেনী সরকারী পাইলট হাইস্কুলের এবারের এসএসসি পরীক্ষার্থী মিনহাজুল ইসলাম অনিক আর শাহরিয়ার হৃদয় গত ৫ জানুয়ারি প্রাইভেট পড়া শেষে বাসায় ফেরার পথে শহরের পাছগাছিয়া রোডের পাশে খেজুর চত্বরে বিএনপি-জামায়াতের বোমাবাজদের হামলার শিকার হয়। বোমা হামলার কিছু সময় আগ থেকে তারা সেখানে বাসায় ফেরার জন্য রিক্সার জন্য অপেক্ষায় ছিল। সরকারের এক বছর পূর্তি উপলক্ষে ঘটনাস্থলের অদূরে শহীদ মিনারে চলছিল আওয়ামী লীগসহ ১৪ দলের জনসভা। বোমাবাজরা সভাস্থলের পাশে বোমা হামলা চালায়। এ বোমা হামলার শিকার হয় দুই শিক্ষার্থী।

আহত অনিক-হৃদয়কে প্রথমে ফেনী সদর হাসপাতালে পরে অনিককে ঢাকা ও হৃদয়কে চট্টগ্রামে স্থানান্তর করা হয়। অনিককে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে ফেনীতে বোমা হামলায় অপর আহত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট আবদুল কাদেরের সঙ্গে ভারতে চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়। ভারতের চেন্নাই শংকর নেত্রালয়ে আর হৃদয়ের চিকিৎসা চলছে ঢাকার জাতীয় চক্ষুবিজ্ঞান ইনস্টিটিউটে। হৃদয়ের ডান চোখ এবং অনিকের বাম চোখ ক্ষতিগ্রস্ত হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুজনের চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন। হৃদয়কেও ভারতে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছে তার পরিবারের পক্ষ থেকে। ফেনী সরকারী পাইলট হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক থেকে শুরু করে সব শিক্ষক এই দুই মেধাবী ছাত্র এবার পরীক্ষা দিতে না পারায় মর্মাহত। হৃদয়ের মা তাঁর স্বজনদের জানান, এসএসসি পরীক্ষার প্রথম দিন স্কুুলের শিক্ষক ও বন্ধুরা হৃদয়ের মা রোজি রওশন আক্তারের সঙ্গে মোবাইলে কথা বলেছে।