১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৪ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

গ্রিসের নতুন তত্ত্ব


গ্রিসের নতুন প্রধানমন্ত্রী বামপন্থী দলগুলোর জোট সাইরিজাপ্রধান এ্যালেক্সিস সিপ্রাস দেশের দেনা মেটাতে নতুন তত্ত্বের উদ্ভাবন করেন। সিপ্রাসের দাবি, গ্রিসের বর্তমান অর্থনৈতিক অবস্থার জন্য দায়ী জার্মান নাজিবাহিনী। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধে গ্রিসে নাজি বাহিনীর অবস্থান দেশটির অবকাঠামো ধ্বংস ও দেউলিয়াপনার জন্য দায়ী। সিপ্রাস বলেন, গ্রিসের ঐতিহাসিক বাধ্যবাধকতা রয়েছে এ ক্ষতি আদায়ে এবং জার্মানির উচিত গ্রিসের সেই ক্ষতি পূরণ করা। এই দায় কেবল জার্মানির একার নয়, বরং সকল ইউরোপীয় জনগণের। ১৯৪১ সালে জার্মান নাজিবাহিনী গ্রিস দখলের পর দেশটির অবকাঠামোর ব্যাপক ক্ষতিসাধনের পাশাপাশি কেন্দ্রীয় ব্যাংক হতে ৪৭৬ মিলিয়ন গ্রিক মুদ্রা লুটপাট কওে, যা গ্রিসের অর্থনীতিকে দেউলিয়াপনার দিকে ঠেলে দেয়। ২০১২ সালে জার্মান পার্লামেন্টের নিম্ন কক্ষ এ অঙ্কের পরিমাণ নির্ধারণ করেন ৮.২৫ বিলিয়ন ডলার, কিন্তু গ্রিসের দাবি ১১ বিলিয়ন ডলার।

ইউরোজোনে প্রবেশ করার পর জার্মানির কাছে গ্রিসের দেনার পরিমাণ দাঁড়ায় ১৮৩ বিলিয়ন ডলার, যা দেশটির মোট দেনার (৩১৫ বিলিয়ন ডলার) অর্ধেক। সিপ্রাস দাবি করেন, চার বছরের আগ্রাসনে গ্রিসের অবকাঠামোয় যে ক্ষতি হয়, তা পূরণের দায় বর্তমান জার্মান সরকারের। গ্রিসের অবকাঠামো ধ্বংসের জন্য ১০৮ বিলিয়ন ও ক্ষতিপূরণ বাবদ ৫৪ বিলিয়ন ডলার ক্ষতিপূরণের দাবি গ্রিস প্রধানমন্ত্রীর। তবে বার্লিন গ্রিস প্রধানমন্ত্রীর এ দাবি হাস্যকর ও অযৌক্তিক বলে জানিয়েছেন। সত্তর বছর পর দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের প্রসঙ্গ আনা অপ্রাসঙ্গিক এমন দাবি জার্মান অর্থমন্ত্রীর। গত ২৫ জানুয়ারি গ্রিসের নির্বাচনে ৩৬ শতাংশ ভোট ক্ষমতায় আসে বামপন্থী জোট সাইরিজা। পার্লামেন্টের ৩০০ সিটের মধ্যে তারা ১৪৯টি সিটে জয়লাভ করে। চল্লিশ বছর বয়সী এ্যালেক্সিস সিপ্রাস ইতোমধ্যে রাশিয়ার বিরুদ্ধে ইউরোপীয় ইউনিয়নের বাণিজ্য নিষেধাজ্ঞার সমালোচনা করেছে। এখন দেখার বিষয়, দেনা নিয়ে জার্মান রাষ্ট্রের সঙ্গে নতুন করে কি তত্ত্বের উদ্ভাবন করেন এই বামপন্থী নেতা। চলমান ডেস্ক