২২ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বিমানবন্দরে সেবার নমুনা


স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিমানবন্দরে যাত্রীর সেবা নিশ্চিত করাই বিমানকর্মীদের কাজ। সেবার বিনিময়ে যদি বখশিশ কিংবা উৎকোচ দাবি করা হয়, সেটা কেমন অপরাধ তা প্রমাণ করেছেন ম্যাজিস্ট্রেট শরীফ মোহাম্মদ ফরহাদ হোসেন। সোমবার দুপুরে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের সৌদি ফেরত এক হজযাত্রীকে লাগেজ সেবা দেয়ার পর বখশিশ চায় বিমানের ট্রাফিক হেলপার নজরুল ইসলাম। প্রথমে ৫০ ডলার,পরে ২০০ রিয়াল চাওয়ার পর তাতে কিছুটা অসন্তষ্ট হন ওই যাত্রী তাজ হাসান। এ নিয়ে তুমুল কা- ঘটে যায়। বিষয়টি গড়ায় পুলিশ ও আদালত পর্যন্ত। আদালত দু’পক্ষের অভিযোগ শুনে বিমানকর্মী নজরুল ইসলামকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৩ মাসের কারাদ- প্রদান করেন।

এ ঘটনা আর্মড পুলিশকে জানায়, সৌদি থেকে ওমরাহ শেষে বিমানের ফ্লাইটে দেশে ফেরেন সস্ত্রীক তাজ হাসান। ইমিগ্রেশন শেষে কনভেয়র বেল্ট এরিয়ায় এসে তিনি তার ব্যক্তিগত কয়েকটা লাগেজ ট্রলিতে তোলার সময় বিমানের ট্রাফিক হেলপার নজরুল ইসলাম তাকে স্বপ্রণোদিত হয়ে সাহায্য করেন। লাগেজ টেনে বাইরে আসতেও সাহায্য করেন। এরপর নজরুল ইসলাম বিনিময়ে ৫০ ডলার বখশিশ চান। এতে হাসান জানান তার কাছে ডলার নেই, কয়েকটি রিয়েল আছে। তখন নজরুল তার কাছে ২০০ রিয়েল দাবি করেন। এতে বিস্ময় প্রকাশ করে তাজ হাসান প্রশ্ন রাখেন এইটুকু কাজের বিনিময়ের মূল্য ২০০ রিয়েল। বলেন-এটা আগে জানা থাকলে লাগেজ টাচ করতেও দিতাম না। এ নিয়ে দু’ পক্ষের বাক- বিত-া, চিৎকার হৈ চৈ। একপর্যায়ে সেটা পৌছায় কর্তব্যরত আর্মড পুলিশের কানে। তাতেই ফেঁসে যান নজরুল ইসলাম। পুলিশ তাকে নিয়ে যায় উপরের ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে। ম্যাজিস্ট্রেট শরীফ মোহাম্মদ ফরহাদ হোসেন উভয় পক্ষের শুনানি শেষে অভিযুক্ত আসামি নজরুল ইসলামকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে তিনমাসের কারাদন্ড প্রদান করেন। এ ঘটনায় অন্যান্য বিমান কর্মচারিদের মধ্যে চরম আতঙ্কের সৃষ্টি করে।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: