২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

বগুড়ায় বার্ন ইউনিট নেই, দগ্ধদের সেবা দেয়া হচ্ছে সীমিত সাধ্যে


বগুড়ায় বার্ন ইউনিট  নেই, দগ্ধদের সেবা দেয়া হচ্ছে সীমিত সাধ্যে

সমুদ্র হক ॥ বার্ন এ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিট না থাকার পরও পেট্রোলবোমায় আক্রান্ত মারাত্মক দগ্ধ রোগীকে সর্বাত্মক চিকিৎসা সেবা দেয়া হচ্ছে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ (শজিমেক) হাসপাতালে। বর্তমানে আন্দোলনের নামে সন্ত্রাসী ও নাশকতার ঘটনায় হরহামেশাই দেশের কোথাও না কোথাও পেট্রোলবোমা ও আগুনে দগ্ধ হওয়ার ঘটনা ঘটছেই। বিশেষ করে মহাসড়কে চলাচলকারী বাস ও ট্রাকে পেট্রোলবোমা ছুঁড়ে দেয়ার ঘটনা ঘটছে বেশি। বাড়ছে হতাহতের সংখ্যা। গেল প্রায় এক মাসে অবরোধ ও হরতালে বগুড়ায় পেট্রোলবোমার ৮টি ঘটনায় মারত্মক ঝলসে গেছে ১৬ জন। এদের মধ্যে মারা গেছেন ৩ জন। বাকিদের বগুড়া শজিমেকে ও ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে উন্নত চিকিৎসার জন্য পাঠানো হয়েছে। বগুড়া শজিমেক হাসপাতালের কার্যত নিজস্ব কোন বার্ন ইউনিট নেই। ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটকে পৃথক করে নিজস্ব আঙ্গিকে বার্ন এ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিট প্রতিষ্ঠার পর বলা হয়েছিল দেশের সকল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের প্রতিটিতে ৫০ শয্যা করে একই ধরনের ইউনিট স্থাপন করা হবে। কার্যত এখনও তা হয়নি। এই বিষয়ে শজিমেক হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোস্তফা কামাল পাশা জানান, ওপর মহলে কথাবার্তা হয়েছে। শীঘ্রই বগুড়া শজিমেক হাসপাতালে বার্ন এ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিট স্থাপিত হবে।