২১ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

“আমার স্কুলে আমি যাব, পথে পথে বাধা কেন”


স্টাফ রিপোর্টার, রাজশাহী ॥ শহর থেকে ৪৫ কিলোমিটারের পথ জেলার তানোর উপজেলার কচুয়া গ্রাম। হরতাল-অবরোধের কারণে নিভৃত এ পল্লীর শিক্ষার্থীরাও ঠিকমত যেতে পারছে না স্কুলে। বছরের প্রথমদিন পাঠ্যবই হাতে পেলেও লাগাতার অবরোধ হরতালের মুখে ব্যহত হচ্ছে তাদের ক্লাসের পাঠদান। এরই মধ্যে বছরের প্রথম মাস পেরিয়ে গেছে। এ প্রেক্ষিতে স্কুলে যাওয়ার দাবিতে রাস্তায় নেমে এসেছে শিক্ষার্থীরা।

রবিবার সকালে তাই গ্রামের স্কুলের শিক্ষার্থীরা রাস্তায় নেমে হাতে হাত ধরে তীব্র প্রতিবাদ জানালো হরতাল-অবরোধ ও নাশকতার। শুধু কচুয়া গ্রামের স্কুলের শিক্ষার্থীরাই নয়, একযোগে উপজেলার সব স্কুলের শিক্ষার্থীরা স্কুলে স্কুলে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছে।

‘স্কুলে যেতে চাই, লেখাপড়া করতে চাই, পরীক্ষা দিতে চাই, মৌলবাদকে না বলুন, সন্ত্রাসীদের রুখে দিন, আমার স্কুলে আমি যাবো, পথে পথে বাধা কেনো’- সাদা কাগজে এই রকম হাজারো প্ল্যাকার্ড নিয়ে শিক্ষার্থীরা নাশকতার বিরুদ্ধে মানববন্ধন কর্মসূচীতে অংশ নেয়। শিক্ষার্থীরা জানায়, হরতাল ও প্রতিরোধে একের পর এক পরীক্ষার সময়সূচী পরিবর্তন হচ্ছে। ঠিকমত তারা স্কুলে যেতে পারছে না। লেখাপড়ায় ভাটা পড়ছে। তাই বাধ্য হয়ে তারা মাঠে নেমেছে।

তাদের সঙ্গে মানববন্ধন কর্মসূচীতে একাত্ততা প্রকাশ করে অংশ নেন শিক্ষক ও সাধারণ মানুষও। বেলা ১১টা থেকে ঘণ্টাব্যাপী স্কুলে স্কুলে মানববন্ধন থেকে হরতাল অবরোধের নামে নাশকতা, নৈরাজ্য ও অগ্নিসংযোগ বন্ধ করার আহ্বান জানান তারা। এছাড়াও উপজেলা সদর, কচুয়া, চুনিয়াপাড়া, কৃষ্ণপুর, কলমা, দরগাডাঙ্গা, চাপড়া, লালপুর, আকচাসহ উপজেলার প্রায় শতাধিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী পৃথকভাবে মানববন্ধন করে। এছাড়া জেলার মোহনপুর, পবা, গোদাগাড়ী, দুর্গাপুর, পুঠিয়া, বাঘা, চারঘাট উপজেলার গ্রামের বিদ্যালয়গুলোতেও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।