২২ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

তিন বছর মূলধন বাড়াতে পারবে না সালভো কেমিক্যাল


অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত ওষুধ এবং রসায়ন খাতের কোম্পানি স্যালভো কেমিক্যাল ইন্ডাস্ট্র্রিজ আগামী ৩ বছর কোন মূলধন বাড়াতে পারবে না। বুধবার এ সংক্রান্ত এক বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করেছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ এ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে জানা গেছে, ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৫ থেকে আগামী ৩ বছরের মধ্যে স্যালভো কেমিক্যাল মূলধন বাড়ানোর জন্য বিএসইসিতে আবেদন করতে পারবে না। সিকিউরিটিজ এ্যান্ড এক্সচেঞ্জ অর্ডিন্যান্স, ১৯৬৯-এর ২০-এ ধারা অনুযায়ী কমিশন এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এর আগে বিএসইসির ৫২৯তম কমিশন সভায় স্যালভো কেমিক্যালকে আগামী ৩ বছরের জন্য পুঁজিবাজার থেকে কোন রকম অর্থ সংগ্রহ ( মূলধন বাড়ানো) না করার নির্দেশ দেয় কমিশন।

জানা গেছে, এই কোম্পানি আইপিওর মাধ্যমে সংগৃহীত অর্থ ব্যবহারে অনিয়ম করেছে। কোম্পানিটি আইপিওর মাধ্যমে সংগৃহীত অর্থ অনুমোদিত প্রসপেক্টাস এবং কনসেন্ট লেটারের শর্তানুযায়ী ব্যবহার করেনি। কোম্পানিটি প্রসপেক্টাসে উল্লিখিত আইপিওর মাধ্যমে সংগৃহীত ২৬ কোটি টাকার জায়গায় ২৪ কোটি টাকা ব্যয় করেছে। আর বাকি ২ কোটি টাকা খরচ হয়নি। কিন্তু কোম্পানিটি বিএসইসিতে দাখিল করা রিপোর্টে ২৬ কোটি টাকা খরচ দেখিয়েছিল। এছাড়া কোম্পানিটি ২২ লাখ ১০ হাজার টাকা ব্যাংকিং চ্যানেলের মাধ্যমে ব্যয় না করে নগদ ব্যয় করেছে। এই কারণে কোম্পানিটিকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা করে বিএসইসি। একই অপরাধে পুঁজিবাজার থেকে কোন ধরনের অর্থ সংগ্রহ না করতেও নির্দেশ দেয় কমিশন।

উল্লেখ্য, ‘এ’ ক্যাটাগরির কোম্পানিটি ২০১১ সালে পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হয়।

১২ সংখ্যার টিআইএন নম্বর চাইল যমুনা অয়েল

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ লভ্যাংশের ওপর ৫ শতাংশ কর অব্যাহতি পেতে বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে ১২ সংখ্যার কর শনাক্তকরণ নম্বর (টিআইএন) চেয়েছে যমুনা অয়েল। আগামী ১০ ফেব্রুয়ারির মধ্যে টিআইএন নম্বর পাঠাতে বলা হয়েছে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। কোম্পানির পক্ষ থেকে আরও জানানো হয়েছে, ১৯৮৪ সালের আয়কর অধ্যাদেশের সেকশন (১), ক্লস (বি), সাব ক্লস (রর) অনুযায়ী, যেসব বিনিয়োগকারীর ১২ সংখ্যার টিআইন নম্বর নেই তাদের লভ্যাংশের ওপর ১৫ শতাংশ কর দিতে হবে। তবে যাদের ১২ সংখ্যার টিআইএন নম্বর রয়েছে তাদের ১০ শতাংশ লভ্যাংশ দিতে হবে।

বিনিয়োগকারীদের ১২ সংখ্যার টিআইএন নম্বর কোম্পানি সচিব, যমুনা অয়েল কোম্পানি লিমিটেড, যমুনা ভবন, আগ্রাবাদ সি/এ, চিটাগাং-৪১০০ এই ঠিকানায় পাঠাতে বলা হয়েছে।