২১ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

হরতাল অবরোধে সিএনজি খাতে এক কোটি টাকা লোকসান


স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের চলমান হরতাল অবরোধে সিএনজি খাতে প্রায় ৩০০ কোটি টাকা লোকসান হয়েছে বলে দাবি করেছেন সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ীরা। শনিবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটেতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ সিএনজি ফিলিং স্টেশন এ্যান্ড কনভার্সন ওয়ার্কশপ ওনার্স এ্যাসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে এ দাবি করা হয়। এ্যাসোসিয়েশনের নেতারা বর্তমান অস্থির পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে রাজনৈতিক দলগুলোকে আলোচনায় বসার আহ্বান জানিয়েছেন।

‘অস্থির রাজনৈতিক অবস্থার অবসান চাই’ শীর্ষক সংবাদ সম্মেলনে সংগঠনটি বলছে এই পরিস্থিতির অবসান না হলে চরম মূল্য দিতে হবে দেশকে। সারাদেশের ৫৯০টি সিএনজি স্টেশনে তিন হাজার কোটি টাকার বিনিয়োগ ঝুঁকির মধ্যে রয়েছে। সিএনজি ব্যবসার সঙ্গে সংশ্লিষ্ট দুই লাখেরও বেশি পরিবার অর্থিক অনটনে পড়েছে। পরিবেশবান্ধব এবং বৈদেশিক মুদ্রা সাশ্রয়ী এই খাতকে বাঁচানোর জন্য সংগঠনের নেতারা রাজনীতিবিদদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে পরিস্থিতির অবসান চেয়েছেন। তাঁরা বলছেন গত এক মাসের অবরোধের কারণে সিএনজি বিক্রি দৈনিক ৮০ শতাংশ কমে গেছে। এতে প্রতিদিন তাদের প্রায় ১০ কোটি টাকা করে লোকসান হচ্ছে। এই পরিস্থিতি চলমান থাকলে লোকসানের পরিমাণ দিনের পর দিন বাড়তে থাকবে।

পদ্মা সেতুর ১ লাখ ঘনমিটার কালো পাথর এখন সোনা মসজিদ বন্দরে

মীর নাসিরউদ্দিন উজ্জ্বল, মুন্সীগঞ্জ ॥ পদ্মা সেতুর ১ লাখ ঘনমিটার কালোপাথর এখন চাঁপাইনবাবগঞ্জের সোনামসজিদ স্থলবন্দরে। হরতাল অবরোধের কারণে এগুলো মাওয়ায় পৌঁছতে কিছুটা বিলম্ব হচ্ছে। তবে বিশেষ ব্যবস্থায় এই পাথর সড়ক পথে আনা হচ্ছে পাবনার নগরবাড়ী ঘাটে।

এখান থেকেই বাল্গহেডে করে যমুনা ও পদ্মা নদী দিয়ে মাওয়ায় আনা হবে। দশ দিন ধরে আসা এই পাথরের সবশেষ চালান আসে গত ২৯ জানুয়ারি। ভারতের পাকুর থেকে বিশেষ এই কালোপাথর আমদানি করা হয়।

বাংলাদেশে ইউএনডিপির নতুন আবাসিক প্রতিনিধি রবার্ট ওয়াটকিন্স

বিশেষ প্রতিনিধি, নিউইয়র্ক থেকে ॥ ইউএনডিপির বাংলাদেশে নিয়োগপ্রাপ্ত নতুন আবাসিক প্রতিনিধি রবার্ট ওয়াটকিন্স শুক্রবার নিউইয়র্কে জাতিসংঘে বাংলাদেশ মিশনে স্থায়ী প্রতিনিধি ও রাষ্ট্রদূত ড. এ. কে. আব্দুল মোমেনের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে মিলিত হন। এ সময় স্থায়ী প্রতিনিধি রবার্ট ওয়াটকিন্সকে ইউএনডিপির বাংলাদেশের বিভিন্ন ক্ষেত্রের চিত্র তুলে ধরেন এবং এ সংস্থার বাংলাদেশের উন্নয়নে অবদানের কথা স্মরণ করেন। স্থায়ী প্রতিনিধি ড. মোমেন আশা প্রকাশ করে বলেন, নতুন প্রতিনিধির মেয়াদে ইউএনডিপি বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে বেশি অবদান রাখবে।