১৭ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

স্তন-ক্যান্সারের জন্য দায়ী জিন শনাক্ত


স্তন ক্যান্সারের জন্য দায়ী জিনের দুটি অংশ শনাক্ত করা হয়েছে। সম্প্রতি লন্ডনের ইনস্টিটিউট অব ক্যান্সার রিসার্চের গবেষকরা জিনের এই দুটি অংশকে চিহ্নিত করেছেন। এই জিনের সূত্র ধরেই স্তন ক্যান্সারের সম্ভাবনার কথা আগাম জানা যাবে। এমনটাই দাবি গবেষকদের।

স্তন ক্যান্সারের চিকিৎসার জন্য রোগ শনাক্ত করা পর্যন্ত অপেক্ষা করলে অধিকাংশ সময়ই দেরি হয়ে যায়। সচেতনতার অভাব, রোগ সম্পর্কে অবহেলা ও মহিলাদের সহজাত সঙ্কোচ প্রভৃতি কারণে এই রোগ যখন ধরা পড়ে ততদিনে তা জটিল আকার ধারণ করে। এই সমস্যার সমাধানেই নতুন এই আবিষ্কার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে গবেষকরা মনে করছেন। বংশগতভাবে স্তন ক্যান্সারের প্রবণতা রয়েছে, এমন প্রায় এক লাখ মহিলার ওপর এই গবেষণাটি করা হয়েছে। লন্ডনের ইনস্টিটিউট অব ক্যান্সার রিসার্চের গবেষকরা দেখেছেন, মানুষের ৯ নম্বর ক্রোমোজোমের দুটি বিশেষ অংশ (লোকাস) স্তন ক্যান্সারের জন্য দায়ী। সংস্থাটির প্রধান গবেষক নিক ওরর জানান, এই দুটি অংশই ইস্ট্রোজেন হরমোনের রিসেপটার হিসেবে কাজ করে। সেই সঙ্গে এই দুটি অংশ (আরএস ১০৮১৬৬২৫ ও আরএস ১৩২৯৪৮৯৫) ‘কেএলএফ-৪’ নামে জিনের কার্যক্ষমতাকে নিয়ন্ত্রণ করে। ‘কেএলএফ-৪’ জিনটি মূলত কোষ বিভাজন ও কোষের বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণ করে। এই জিনের কার্যক্ষমতা অস্বাভাবিক মাত্রায় বেড়ে গেলে টিউমার ও ক্যান্সার হতে পারে। গবেষণায় অংশ নেয়া নারীদের মধ্যে ৮৬ হাজার ইউরোপ, ১২ হাজার এশিয়া ও দু’হাজার আফ্রিকার নাগরিক। গবেষণায় দেখা গেছে, এই জিনের প্রভাবে এশিয়ার নাগরিকদের তুলনায় ইউরোপীয়দের ক্যান্সার সংক্রমণের ঝুঁকি অনেক বেশি।

-সংবাদ প্রতিদিন