১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৫ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

বাগেরহাটে খাল দখলের মহোৎসব


স্টাফ রিপোার্টার, বাগেরহাট ॥ বাগেরহাটের চিতলমারীতে চলছে সরকারী খাল দখলের মহোৎসব। প্রভাবশালীদের দখলে এলাকার অধিকাংশ খাল ও নদী। যে যার মতো ইট-বালু ফেলে ও অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করে দখল করে নিচ্ছে সরকারী খাল। এতে নৌ যোযোগ ও কৃষিকাজ এখন হুমকির মুখে পড়েছে। সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে, চিতলমারী সদর বাজারের পাশ থেকে বয়ে যাওয়া ‘হক ক্যানেল’সহ বেশ কিছু স্থানে সীমানা সংলগ্ন খালের পাশে বসবাসকারী প্রভাবশালী লোকজন সরকারী খালটির বেশিরভাগ অংশ দখল করে নিয়েছে। এসব স্থানে যে যার মতো অবৈধ স্থাপনা নির্মাণসহ ভরাট করে ফেলছে। ফলে খাল থেকে নৌযোগাযোগ অচল হয়ে পড়েছে। এছাড়া জোয়ার-ভাটার পানি ঠিকমতো ওঠা-নামা করতে না পারায় বোরো মৌসুমে চাষীরা ঠিকমতো ফসলের পানি পাচ্ছেন না বলে অভিযোগ। এঅবস্থায় উপজেলার কুরালতলা, শিবপুর, কালশিরা, বারাশিয়া, আড়ুয়াবর্নীসহ প্রায় ৮ থেকে ১০ গ্রামের কয়েক হাজার চাষীকে চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। পাশাপাশি চিতলমারী সদর বাজারে আসা-যাওয়ার জন্য কৃষিপণ্যসহ মাল আনানেয়ার জন্য নৌকায় চলাচলে চরম বিঘœ সৃষ্টি হচ্ছে। দখলদারদের কারণে খালটি এখন চলাচলে অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। এ অবস্থায় খালটি দখলদার মুক্ত করতে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছেন এলাকার সচেতন মহল। কৃষক ধীরেন্দ্র নাথ বালা, নিমাই ঢালীসহ অনেকে বলেন, ‘এভাবে খাল দখল হতে থাকলে আগামী কিছুদিনের মধ্যে খালের কোন অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া যাবে না। আমরা চাষা-বাদের জন্য পানি পাব না।

চিতলমারী সদর ইউপি চেয়ারম্যান শেখ নিজাম উদ্দিন জানান, খালটি দ্রুত দখলদার মুক্তসহ খনন করা প্রয়োজন। এ ব্যাপারে চিতলমারী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ দিদারুল আলম বলেন, খোঁজখবর নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।