১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৩ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

আইএসের বিরুদ্ধে কঠোর লড়াইয়ের অঙ্গীকার জর্দানের বাদশাহর


জর্দানের বাদশাহ দ্বিতীয় আবদুল্লাহ বুধবার তাঁর সামরিক বাহিনীর ইসলামিক স্টেট জঙ্গীদের বিরুদ্ধে তাদের নিজ আবাসে ‘কঠোর হামলা চালিয়ে যাওয়ার অঙ্গীকার করেছেন। লড়াইয়ের সম্ভাব্য এ বিস্তৃতি জর্দানকে সিরিয়ার গৃহযুদ্ধে জড়িয়ে ফেলতে পারে। জর্দান দু’জন সাজাপ্রাপ্ত সন্ত্রাসবাদীকে ফাঁসি দেয়ার কয়েক ঘণ্টা পর বাদশাহ আবুদল্লাহ তাঁর সিকিউরিটি ক্যাবিনেট ও শীর্ষ জেনালেদের সঙ্গে শলাপরামর্শে জন্য বৈঠকে মিলিত হন। আইএস একজন আটক জর্দানী পাইলটকে খাঁচার মধ্যে জীবন্ত পুড়িয়ে হত্যার ভিডিও প্রচারের পর প্রতিশোধ হিসেবে ওই দু’জনকে ফাঁসি দেয়া হয়। মধ্যপ্রাচ্যজুড়ে নেতৃবৃন্দ ও যুক্তরাষ্ট্র শরীরে আগুন দিয়ে হত্যার এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানায় এবং হোয়াইট হাউস এ ‘বর্বরোচিত কাজের মোকাবিলায়’ ইসলামিক সেস্টের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের আন্তর্জাতিক জোটে জর্দান শক্তি ও অঙ্গীকার নিয়োজিত করবে বলে আশা প্রকাশ করে। এ হত্যাকা- ভারি অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত ইসলামিক স্টেট যারা আইএস বা আইএসআইএল হিসেবেও পরিচিত। তাদের বিরুদ্ধে মার্কিন নেতৃত্বাধীন অভিযানের জর্দানী সমালোচকদের মুখ বন্ধ করে দিয়েছে। দেশপ্রেমের অনুমতি জাগিয়ে তুলতে জর্দান সরকার ঘটনাকে কাজে লাগিয়েছে। রাজধানী আম্মানে রাস্তায় বিলবোর্ড আকারের পোস্টার শোভা পাচ্ছে, যাতে লেখা ‘আমরা সকলে জর্দানী’। পতাকা নাড়িয়ে সমর্থকদের বিশাল জনতা যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে স্বদেশ প্রত্যাগত বাদশাহকে স্বাগত জানায়। আবদুল্লাহ ঘোষণা করেন, ‘আমরা এসব অপরাধীকে খুঁজে বের করব। আমরা তাদের নিজেদের ঘরে আঘাত হানব।’ ‘আমরা এ লড়াই চালাচ্ছি আমাদের ঈমান, মূল্যবোধ এবং আমাদের মানবিক নীতিমালা রক্ষার জন্য। খবর ওয়াশিংটন পোস্টের।