২২ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

না’গঞ্জ সিটিতে জমছে আবর্জনার স্তূপ ॥ দূষিত হচ্ছে পরিবেশ


স্টাফ রিপোর্টার, নারায়ণগঞ্জ ॥ নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন আবর্জনা ফেলার সময় ট্রাকে হামলা, ভাংচুর, পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের মারধর করার প্রতিবাদে বর্জ্য অপসারণ বন্ধ রাখায় নগরীতে জমেছে আবর্জনার স্তূপ। ছড়াচ্ছে দুর্গন্ধ। দূষিত হচ্ছে পরিবেশ। বাড়ছে জন-দুর্ভোগ। ময়লা ফেলার জায়গা নিয়ে জটিলতা নিরসনে নেই কোন উদ্যোগ।

নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ভারপ্রাপ্ত মেয়র হাজী ওবায়েদউল্লা জানান, নগরীতে প্রতিদিন তিনশত টন ময়লা জমে। এসব বর্জ্য অপসারণ করা হয় ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ লিংক রোডের পূর্বপাশে ফতুল্লা থানার লামাপাড়ায় ওসমান আলী জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামের সামনে। ওই জায়গায় ময়লা আবর্জনা ফেলায় ২৬ জানুয়ারি সোমবার পরিবেশ অধিদফতর সিটি করপোরেশনকে ২ লাখ টাকা জরিমানা করে। এ কারণে মঙ্গলবার ও বুধবার নগরীর ময়লা-আবর্জনা অপসারণ বন্ধ রাখা হয়। এ বিষয়ে ২৮ জানুয়ারি বুধবার দুপুরে কাউন্সিলরদের এক সভায় নগরবাসীর ভোগান্তির কথা বিবেচনা করে ২৯ জানুয়ারি বৃহস্পতিবার থেকে আবারও ময়লা-আবর্জনা অপসারণের কাজ শুরু করার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। তবে নতুন ডাম্পিং গ্রাউন্ডের নির্মাণ কাজ শেষ না হওয়া পর্যন্ত আগের জায়গাতেই বর্জ্য অপসারণ করা হবে বলে সিদ্ধান্ত হয়। বৃহস্পতিবার বেলা পৌনে ১২টায় ময়লাবাহী তিনটি ট্রাক বর্জ্য অপসারণ করতে ডাম্পিং গ্রাউন্ডে গেলে শতাধিক লোক লাঠিসোঁটা, রড নিয়ে হামলা চালায়। তারা ট্রাক থেকে চালক ও পরিচ্ছন্নতা কর্মীদের টেনেহিঁচড়ে নামায় এবং মারধর করে। হামলায় ২০ জন পরিচ্ছন্নতা কর্মী আহত হয়। ভাংচুর করা হয় তিনটি ট্রাক। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে ওই দিন বিকেলে নগর ভবনে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশন এ বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে। সংবাদ সম্মেলনে শান্তিপূর্ণ সমাধান না হওয়া পর্যন্ত নগরীর ময়লা-আবর্জনা অপসারণ বন্ধ থাকার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।