২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

আবুল আসাদসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে রুলের শুনানি ২৪ ফেব্রুয়ারি


স্টাফ রিপোর্টার ॥ আদালত অবমাননার অভিযোগে দৈনিক সংগ্রামের সম্পাদক আবুল আসাদসহ ৪ জনের বিরুদ্ধে জারি করা রুলের শুনানির জন্য ২৪ ফেব্রুয়ারি দিন ধার্য করেছে ট্রাইব্যুনাল। অন্যদিকে মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে অভিযুক্ত চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জের রাজাকার মাহিদুর রহমান ও মোঃ আফসার হোসেন চুটুর বিরুদ্ধে প্রসিকিউশনের তৃতীয় সাক্ষী জাকারিয়ার জবানবন্দী শেষ হয়েছে। জবানবন্দী শেষে সাক্ষী আসামিকে শনাক্ত করতে পারেননি। পরবর্তী দিন ধার্য্য করা হয়েছে ৮ ফেব্রুয়ারি। বৃহস্পতিবার আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-১ ও ২ এ আদেশগুলো প্রদান করেছেন।

্আদালত অবমাননার দায়ে দৈনিক সংগ্রামের সম্পাদকসহ ৪ জনের রুলের শুনানির দিন আবারও পিছিয়েছে। তাদের আইনজীবী শিশির মনিরের সময়ের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ট্রাইব্যুনাল পরবর্তী দিন নির্ধারণ করেছেন ২৪ ফেব্রুয়ারি। চেয়ারম্যান বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিমের নেতৃত্বে তিন সদস্যবিশিষ্ট আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল -১ এ আদেশ প্রদান করেছেন। ট্রাইব্যুনালে অন্য দুই সদস্য ছিলেন বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন সেলিম ও বিচারপতি আনোয়ারুল হক।

বিচারাধীন বিষয় নিয়ে বক্তব্য দেয়া এবং সেই বক্তব্য প্রকাশ করায় দৈনিক সংগ্রাম পত্রিকার সম্পাদক আবুল আসাদসহ চারজনের বিরুদ্ধে তিন আগস্ট আদালত অবমাননার রুল জারি করেন ট্রাইব্যুনাল। রুলের অন্য বিবাদীরা হলেন- সংগ্রামের রংপুর প্রতিনিধি মোঃ নুুরুজ্জামান, স্থানীয় সাবেক মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার ইকরামুল হক দুলু ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা এ্যাডভোকেট আজিজুর রহমান সরকার রাঙ্গা।

বিচারাধীন বিষয় নিয়ে বক্তব্য দেয়া এবং সেই বক্তব্য প্রকাশ করায় দৈনিক সংগ্রাম পত্রিকার সম্পাদকসহ চারজনের বিরুদ্ধে গত তিন আগস্ট আদালত অবমাননার রুল জারি করে ট্রাইব্যুনাল। ‘একাত্তর সালে আজহার নামে কোন রাজাকার কমান্ডারের নাম শুনিনি’ এবং ‘১৯৬৯ সাল থেকে ১৯৭৪ সাল পর্যন্ত রংপুর কারমাইকেল কলেজে আজহার নামে কোন ছাত্রনেতা ছিলেন না’ শিরোনামে সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ইকরামুল হক দুলু এবং সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আজিজুর রহমান সরকার রাঙ্গার উদ্ধৃতি দিয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছিল দৈনিক সংগ্রাম। ওই প্রতিবেদন আজহারের পক্ষে ডকুমেন্ট হিসেবে উপস্থাপন করতে গেলে ট্রাইব্যুনাল সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে রুল জারি করে আদেশ দেয়।

দুই রাজাকার ॥ মানবতাবিরোধী অপরাধের অভিযোগে অভিযুক্ত চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জের মাহিদুর রহমান ও মোঃ আফসার হোসেন চুটুর বিরুদ্ধে প্রসিকিউশনের তৃতীয় সাক্ষী জাকারিয়া জবানবন্দী প্রদান করেছেন। জবানবন্দী শেষে সাক্ষীকে আসামি শনাক্ত করতে বলায় আসামিকে ঠিক মতো শনাক্ত করতে পারেননি। পরবর্তী দিন নির্ধারণ করা হয়েছে ৮ ফেব্রুযারি। চেয়ারম্যান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান শাহীনের নেতৃত্বে তিন সদস্যবিশিষ্ট আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল-২ এ আদেশ প্রদান করেছেন। ট্রাইব্যুনালে অন্য দুই সদস্য ছিলেন- বিচারপতি মোঃ মুজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি মোঃ শাহিনুর ইসলাম।