১৭ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

শামিতাভ নিয়ে অমিতাভ আর ধানুশ


২০১৫-তে প্রথমবারের মতো পর্দায় আগমন। সেইসঙ্গে এই প্রথম তামিল কোন নায়কের সঙ্গে একই ছবিতে অভিনয়। শুধু কি তাই? দীর্ঘ তিন দশকেরও বেশি সময় পর রেখার সঙ্গে একই ছবিতে। এমনকি ছবির নামটাও নিজের নামের সঙ্গে মিলিয়ে ‘শামিতাভ’।

হ্যাঁ, কোলাবেরি ডি-খ্যাত তামিল তারকা ধানুশ ও বলিউডের কিংবদন্তি অমিতাভ বচ্চন অভিনীত এ ছবিটি বলিউডের বড় পর্দায় মুক্তি পেতে যাচ্ছে আগামী ৬ ফেব্রুয়ারি। আর এ ছবিতেই দীর্ঘদিনের মনোমালিন্যের অবসান ঘটিয়ে একই ছবিতে অভিনয় করছেন রেখা ও অমিতাভ বচ্চন। তবে তাদের একই ফ্রেমে পাওয়া যাবে না, বরং ধানুশের সঙ্গে রেখা কথা বলবেন, কিন্তু কণ্ঠ থাকবে অমিতাভের। কিভাবে সম্ভব? হ্যাঁ, গল্পের ধরনের কারণেই সিনেমার এমন নাম। ধানুশ ও অমিতাভের নামের অংশ মিলিয়ে শামিতাভ।

তো গল্পে ফেরা যাক। ধানুশ ও অমিতাভ দু’জনেই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির শিল্পী। তবে ধানুশ মূক ও বধির। অপরদিকে অমিতাভের রয়েছে চমৎকার কণ্ঠ। আর দু’জনেরই একটা বিষয়ে মিল আছে। সেটা হলো দু’জনেই ব্যর্থ শিল্পী। তো দু’জন দু’জনকে সাহায্য করতে এগিয়ে আসে। একজনের পর্দায় উপস্থিতি। অপরজনের কণ্ঠ। ফলে সাফল্য আসতে সময় নেয় না। কিন্তু তারপর? জানতে চোখ রাখতে হবে বড় পর্দায়।

পরিচালক আর বালকির আগেও অমিতাভ বচ্চনকে নিয়ে ‘চিনি কম’ ও ‘পা’ ছবিতে কাজ করেছেন। ফলে তাদের মাঝে বোঝাপড়া বেশ ভাল। আর ধানুশ তো তামিল ছবির জগতে জনপ্রিয় নাম। সঙ্গে এই ছবির মাধ্যমেই গুণী বাবা কমল হাসান ও বড় বোন শ্রুতি হাসানের পথ ধরে পর্দায় প্রথমবারের মতো উপস্থিত হচ্ছেন আকসারা হাসান যা কিনা গল্পের ক্লাইম্যাক্স আনতে সহায়তা করবে বলাই বাহুল্য। পরিচালকও তেমনটাই আশাবাদ ব্যক্ত করছেন। তিনি বলেন, ‘শামিতাভ কোন ট্র্যাডিশনাল সিনেমা নয় বরং দর্শক প্রতি মুহূর্তে অনুমানের সাগরে হাবুডুবু খাবে যা তাদের শেষ পর্যন্ত হলে বসিয়ে রাখবে।’ ইতোমধ্যেই দুটি ট্রেলার মুক্তি দেয়ার মাধ্যমে দর্শককুলের মাঝে যথেষ্ট আগ্রহ তৈরি হয়েছে।

এ ছবিতে কিছু বিশেষ দৃশ্যে অভিনয় করছেন বলিউডের মুখ চেনা এক ঝাঁক পরিচালক। এদের মাঝে রয়েছেন করন জোহর, অনুরাগ বসু, রাজকুমার হিরানি, রাকেশ ওমপ্রকাশ মেহরা, মহেশ ভাট ও আরও অনেকেই।

আর ধানুশ? বিগ বীর সঙ্গে প্রথমবারের মতো বড় পর্দা ভাগাভাগি করতে যাওয়া ধানুশের কি অনুভূতি? ‘অমিতাভ বচ্চনের সঙ্গে অভিনয় করার মতো যোগ্যতা আমার এখনও হয়ে ওঠেনি যেখানে এখনও আমাকে প্রতিদিন হিন্দি ভাষা শিখতে হচ্ছে।’ অমিতাভের শোলে ও দিওয়ারের ভক্ত ধানুশ কিভাবে সামলাচ্ছেন বলিউড ও তামিল ছবির ব্যস্ততা? তার মতে আন্তরিকতা থাকলে দুই ইন্ডাস্ট্রিতেই সময় দেয়া সম্ভব। সঙ্গে আরও জানালেন বলিউড ও সাউথ ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে তিনি পৃথক করে দেখেন না।

সুতরাং নতুন বছরে বিগ বীর বিগ স্টার্ট, সঙ্গে থাকুক তামিল সম্ভাবনা... দেখা যাক বড় পর্দায় শামিতাভ আর কি চমক রেখেছে দর্শকদের জন্য।