১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৪ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

তৃণমূল নেতা মুকুলকে শুক্রবার সিবিআই দফতরে তলব


টানাপোড়েন আপাতত শেষ। তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক মুকুল রায়কে ৩০ জানুয়ারি শুক্রবার সিবিআই দফতরে হাজিরা দিতে হবে। সিবিআই সূত্রের দাবি, মুকুল ২৮ জানুয়ারি বা তার পরে তদন্ত প্রক্রিয়ায় যোগ দিতে পারবেন বলে জানিয়েছিলেন। সেই অনুসারেই ৩০ জানুয়ারি বেলা ১১টার মধ্যে তাকে হাজির হতে বলা হয়েছে। মুকুল রায় এর আগে বলেছিলেন, তিনি তদন্তে সহযোগিতা করবেন এবং যথাসময়েই সিবিআই দফতরে যাবেন। কিন্তু হাজির হওয়ার দিন কৌঁসুলি মারফত তিনি ১৫ দিন সময় চান। সিবিআই সূত্রে বলা হয়েছিল, ২১ জানুয়ারি পর্যন্ত অপেক্ষা করে তাকে ফের নোটিস পাঠানো হতে পারে। তখন মুকুল জানান, সারদা কাণ্ডে সিবিআই তদন্ত নিয়ে সুপ্রীমকোর্টে শুনানির পরে তিনিই যোগাযোগ করবেন। -আনন্দবাজার পত্রিকা অনলাইন।

মোদিকুর্তা পরার ইচ্ছা ছিল ওবামার

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা রাষ্ট্রীয় সফরে এখন ভারতে অবস্থান করছেন। তার সম্মানে রবিবার রাতে রাষ্ট্রপতি ভবন রাইসিনা হিলে রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জির দেয়া রাষ্ট্রীয় নৈশভোজে ওবামা অকপটে বলেন, আজ ভেবেছিলাম মোদিকুর্তা পরব। এভাবে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে গলায় গলায় ভাবের আরেকটি দৃষ্টান্ত তুলে ধরেন তিনি। শুধু তাই নয়, ওবামা তার বক্তৃতায় বার বার মোদির কথা উল্লেখ করেন।

মার্কিন প্রেসিডেন্টের বক্তব্যে মোদির জীবনযুদ্ধের কথা, তার কাজপাগল স্বভাবের কথা, তার ফ্যাশন সচেতনতার কথা উঠে আসে। যেমন জানালেন, তার দেশের কোন এক কাগজে একবার হেডলাইন বেরিয়েছিল, ‘মিশেল ওবামাকে বাদ দিয়ে এই মুহূর্তে নতুন ফ্যাশন আইকন কে?’ আর সে কথা বলতে গিয়েই মোদিকুর্তার অবতারণা। শুনে স্বয়ং মোদির মুখেও দেখা দিল লাজুক হাসি। টেবিলের উল্টোদিকে তখন মুচকি হাসছেন সোনিয়া গান্ধী। ওবামা বললেন, শুধু জানতাম না, উনি (মোদি) একবার কুমিরের সঙ্গে লড়েছিলেন। কাজেই উনি কড়া ধাতের মানুষ। আর উনার একটা স্টাইল আছে। উনি কীভাবে দিনরাত কাজ করেন সেটা শুনেছিলাম। কিন্তু আজ শুনলাম গত রাতে মাত্র তিন ঘণ্টা ঘুমিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। একটু খারাপ লাগল। আমি যে ঘণ্টাপাঁচেক ঘুমিয়েছি। -পিটিআই