২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

অজ্ঞান পার্টির কবলে দুই পুলিশ


স্টাফ রিপোর্টার ॥ তারা দু’জনেই পুলিশ। অপরাধীর ছোবল থেকে আত্মরক্ষার কৌশল সম্পর্কে সারদায় তাদের বিশেষ প্রশিক্ষণও দেয়া হয়েছে। তার পরও তারা আম-পাবলিকের মতোই ধরা খেলেন। অজ্ঞান পার্টির ছোবলে পড়ে সব খুইয়েছেন। তারা ডিউটিতে ছিলেন না। ছুটি নিয়ে সিভিল ড্রেসে কর্মস্থল থেকে নিজ বাড়িতে ফিরছিলেন। তাতেই কা- ঘটিয়ে ফেলে অজ্ঞানওয়ালারা।

রাজধানীর কমলাপুর রেলস্টেশনে শুক্রবার দুপুরে তাদেরকে অচেতন অবস্থায় উদ্বার করা হয়। তার আগেই ওদের সঙ্গে থাকা মোবাইল ফোন ও নগদ টাকা সবই নিয়ে চম্পট দেয় অজ্ঞান দলের সদস্যরা। তারা এখন ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। হতভাগারা হলেনÑ রকি রায় (২৪) ও বকুল চন্দ্র রায় (২৪)। জানা গেছে, দু’জনেরই কর্মস্থল বান্দরবান। তাদের গ্রামের বাড়ি ঠাকুরগাঁয়ের শেনীহাটিতে। রকির চাচাত ভাই ভবানি প্রসাদ রায় জানান, তারা দু’জনই বান্দরবানে পুলিশের কনস্টেবল ৯ হিসেবে কর্মরত। গ্রামের বাড়িতে যাওয়ার জন্য বৃহস্পতিবার রাতে বান্দরবান থেকে ট্রেনে উঠেন। ট্রেন কমলাপুর আসার পর তাদের উদ্ধার করা হয়। পুলিশের ধারণাÑ রাতের কোন এক সময় অজ্ঞান পার্টির সদস্যরা নেশা জাতীয় দ্রব্য খাইয়ে তাদের কাছে থাকা নগদ টাকা পয়সা ও মোবাইল নিয়ে যায়। রকির কাছে ৩০ হাজার টাকা ছিল। তবে বকুলের কাছে কত টাকা ছিল তা এখনও জানা যায়নি।

তাহলে কিভাবে তাদের অচেতন করা হলো? এমন জবাবে পুলিশ কিছুই বলতে পারেনি। তবে পুলিশের ধারণা, ট্রেনেই সহযাত্রীর বেশেই এমন কা- ঘটানো হয়।