২১ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বার্ন ইউনিটে স্পীকার সহিংসতা বন্ধে প্রতিটি বিবেকবান মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে


সংসদ রিপোর্টার ॥ সম্প্রতি বিএনপি-জামায়াতের ডাকা হরতাল-অবরোধসহ নানা নাশকতায় অগ্নিদগ্ধ হওয়া ব্যক্তিদের পাশে কিছু সময় কাটালেন জাতীয় সংসদের স্পীকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। এ সময় স্পীকার বলেন, এ ধরনের সহিংসতা ও সন্ত্রাস কোন রাজনীতি হতে পারে না। রাজনৈতিক অবস্থা যা-ই হোক না কেন এজন্য সাধারণ নিরীহ মানুষকে পুড়িয়ে মারা ন্যায়সঙ্গত নয়। দেশের প্রত্যেকটা বিবেকবান মানুষকে সহিংসতা বন্ধে উদ্যোগ নিতে হবে। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, সমাধানের কি আর কোন পথ নেই যে, সাধারণ মানুষকে পুড়িয়ে মারতে হবে? এটা অত্যন্ত নৃশংস নারকীয় অধ্যায়।

বৃহস্পতিবার সকালে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিট পরিদর্শন শেষে উপস্থিত সাংবাদিকদের কাছে এমন মন্তব্য করেন তিনি। চলমান সহিংস রাজনৈতিক পরিস্থিতিতে সরকার ও বিএনপিকে আলোচনায় বসার আহ্বান জানাবেন কি না? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে স্পীকার বলেন, এই মুহূর্তে সহিংসতা, অগ্নিসংযোগ, পেট্রোলবোমা বন্ধে সুদৃঢ় অবস্থান নিচ্ছি।

আবেগজড়িত কণ্ঠে স্পীকার বলেন, আসলে এ রকম একটা পরিস্থিতিতে কখনও বার্ন ইউনিটে এসে ২২ জন অগ্নিদগ্ধ, যারা আমাদেরই ভাই ও বোন, তাদের দেখতে হবে তা কখনই চিন্তা করি নাই। কাজেই একটি অত্যন্ত নির্মম বেদনাদায়ক অভিজ্ঞতা। চিকিৎসকদের কাছ থেকে জানতে পেরেছি এ ক’দিনে তারা মোট ৪৪ জন অগ্নিদগ্ধ রোগীকে চিকিৎসা দিয়েছেন। তাদের মধ্যে বেশিরভাগই রিক্সাচালক, অটোচালক কিংবা ট্রাকচালক। খেটে খাওয়া এসব মানুষ নিজেদের জীবিকা নির্বাহের জন্য রাস্তায় বেরিয়েছিলেন। দেশের প্রত্যেকটা বিবেকবান মানুষকে সহিংসতা বন্ধে উদ্যোগ নিতে হবে।

স্পীকার বার্ন ইউনিট ঘরে ঘরে বিএনপি-জামায়াতের চলমান হরতাল-অবরোধে দুষ্কৃতকারীদের পেট্রোলবোমা হামলায় আহত ও ঝলসে যাওয়া রোগীদের শারীরিক অবস্থার খোঁজখবর নেন, চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলেন এবং আহতদের পরিবারের অবস্থার খোঁজখবর নেন। এ সময় স্পীকার হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ২১ জন আহত রোগীর প্রতিজনকে জাতীয় সংসদের পক্ষ থেকে ১০ হাজার টাকা করে আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন।

স্পীকারের সঙ্গে এ সময় জাতীয় সংসদের চীফ হুইপ আ স ম ফিরোজ, হুইপ মোঃ শহিদুজ্জামান সরকার, হুইপ ইকবালুর রহিম, হুইপ মোঃ শাহাব উদ্দিন, হুইপ সোলায়মান হক জোয়ার্দার (ছেলুন), হুইপ মাহবুব আরা বেগম গিনি, অনুমিত হিসাব সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি এ্যাডভোকেট আবদুল মতিন খসরু, স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য হাজী মোহাম্মদ সেলিম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।