১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

কমছে মিছিল সমাবেশ সিলেটের ২০ পয়েন্টে ৫২ গোপন ক্যামেরা ॥ সন্ত্রাসী ধরছে পুলি


স্টাফ রিপোটার, সিলেট অফিস ॥ সিলেটে নাশকতার সঙ্গে জড়িতদের শনাক্ত করতে পুলিশ বিশেষ ব্যবস্থা নিয়েছে। এই লক্ষ্যে ডিজিটাল পদ্ধতি গ্রহণ করা হয়েছে। অপরাধ ও নাশকতাকারীদের শনাক্ত করতে সিলেট নগরীর ব্যস্ততম ও ঝুঁকিপূর্ণ অন্তত ২০ পয়েন্টে ৫২টি গোপন ক্যামেরা স্থাপন করা হয়েছে। গোপন ক্যামেরার মাধ্যমে দিনরাত পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে পরিস্থিতি। যারা এসব পয়েন্টে নাশকতা চালাচ্ছে ক্যামেরায় ধারণকৃত চিত্র দেখে তাদের শনাক্ত করা হচ্ছে। অবরোধ ও হরতাল কর্মসূচী পালনের নামে নাশকতাকারীদের গ্রেফতারে চালানো হচ্ছে অভিযান।

জানা যায়, পুলিশের সাঁড়াশি অভিযানের কারণে সিলেটে হরতাল ও অবরোধ সমর্থক নেতাকর্মীদের প্রকাশ্যে মিছিল-সমাবেশ করতে দেখা যাচ্ছে না। রাজনৈতিক কর্মসূচী সফলের নামে তারা প্রতিদিন বিভিন্ন স্থানে ২-৩ মিনিটের ঝটিকা মিছিল বের করে গাড়ি ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ও বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে পালিয়ে যাচ্ছে।

নাশকতাকারীদের ধরতে ব্যক্তি উদ্যোগে বিভিন্ন বাসা-বাড়ি ও ব্যবসা-প্রতিষ্ঠানে লাগানো সিসি ক্যামেরাগুলো সর্বক্ষণিক চালু রাখার নির্দেশ দিয়েছে পুলিশ। প্রয়োজনে ব্যক্তি উদ্যোগে লাগানো ক্যামেরায় ধারণকৃত ফুটেজ সংগ্রহ করে সেটা কাজে লাগানো হবে।

গত বৃহস্পতিবার নগরীর কুমারপাড়ায় কোতোয়ালি থানার ওসির গাড়িতে পেট্রোল বোমা ছুড়ে মারার দৃশ্যও ধরা পড়ে সেখানকার গোপন ক্যামেরায়। ফুটেজ দেখে ইতোমধ্যে শনাক্ত করা হয়েছে হামলাকারীদের।

এছাড়া জিন্দাবাজারে পুলিশের সঙ্গে ছাত্রদলের সংঘর্ষ, সিটি সেন্টারের সামনে ককটেল বিস্ফোরণ, শেখঘাটে শিবিরের সঙ্গে পুলিশের সংঘর্ষসহ বেশ কয়েকটি ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের চিহ্নিত করা হয়েছে ক্যামেরার ফুটেজ দেখে। ক্যামেরায় ধারণকৃত ছবি নিয়ে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কয়েকটি টিম নাশকতাকারীদের আটকে অভিযান চালিয়ে যাচ্ছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: