২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

দুই রাতে নিহত দুই ‘ভয়ানক সন্ত্রাসী’


বিশেষ প্রতিনিধি ॥ রাজধানীতে পরপর দুই রাতে কথিত বন্দুকযুদ্ধে দুজনের নিহতের ঘটনায় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, জামায়াতে ইসলামী ও ছাত্রদলের ওই দুজন ‘ভয়ানক সন্ত্রাসী’। তিনি বলেন, এটি ‘ক্রসফায়ার’ নয়, পুলিশ ‘বাধ্য হয়েই’ তাদের গুলি করেছে।

বিএনপি-জামায়াত জোটের লাগাতার অবরোধের মধ্যে রবি ও সোমবার মধ্যরাতে মতিঝিল ও খিলগাঁওয়ে গুলিবিদ্ধ হয়ে মারা যান বিরোধী জোটের ওই দুই নেতা-কর্মী। প্রথমদিন নিহত জামায়াতে ইসলামীর নেতা ইমরুল কায়েস (৩৮) নড়াইল পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর। আর খিলগাঁওয়ে নিহত নুরুজ্জামান জনি (৩০) ছাত্রদলের ঢাকা মহানগরের থানা শাখার সাধারণ সম্পাদক।

গত বছর নির্বাচনের আগে বিএনপি-জামায়াত জোটের আন্দোলন চলাকালে নড়াইলে পুলিশের ওপর হামলার একটি মামলার আসামি ছিলেন ইমরুল। জনি চলমান অবরোধের মধ্যে গত শনিবার শাহবাগে পুলিশ বাসে পেট্রোলবোমা হামলা চালিয়েছিলেন বলে অভিযোগ পুলিশ কর্মকর্তাদের।

এই দুটি মৃত্যুর বিষয়ে স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মঙ্গলবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের বলেন, এটা ক্রসফায়ার নয়। তারা ‘ভয়ানক সন্ত্রাসী’। পুলিশকে লক্ষ্য করে তারা গুলি ছোড়ে। পুলিশ বাধ্য হয়েই তাদের গুলি করেছে।

ঢাকায় আসা ইমরুলকে দুই দিন আগে আটকের পর পরিকল্পিতভাবে ‘হত্যা’ করা হয়েছে বলে জামায়াত দাবি করেছে। জনিকে নিয়েও একই অভিযোগ করে ছাত্রদল বুধ ও বৃহস্পতিবার ঢাকায় হরতাল ডেকেছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: