২৪ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

সহিংসতার এক বছরেও দিনাজপুরে ক্ষতিপূরণ পায়নি সংখ্যালঘুরা


স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর ॥ যুদ্ধাপরাধীর ফাঁসি ও ১০ম সংসদ নির্বাচন সংক্রান্ত সহিংস হামলার এক বছর অতিক্রান্ত হলেও কোন ক্ষতিপূরণ পায়নি হামলায় আক্রান্ত চিরিরবন্দর উপজেলার অঁকড়াবাড়ী ও খানসামা উপজেলার রামনগরের ক্ষতিগ্রস্ত সংখ্যালঘুরা। ক্ষয়ক্ষতির বোঝা নিয়ে তাদের এখনও অনেকটা ভয়ভীতি ও বেদনার মধ্যে দিন পার করতে হচ্ছে। ২০১৩ সালের ১৩ ডিসেম্বর যুদ্ধাপরাধী কাদের মোল্লার ফাঁসির রাতে জামায়াত-শিবিরের সশস্ত্র সন্ত্রাসীরা খানসামার ভাবকী ইউনিয়নের রামনগর গ্রামে এবং ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি ১০ম সংসদ নির্বাচনের দিন চিরিরবন্দর উপজেলার অঁকড়াবাড়ী হাটের সংখ্যালঘুদের বাড়িঘর ও দোকানপাটে হামলা চালায় নির্বাচন বিরোধীরা। ওই হামলায় সংখ্যালঘুদের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। কিন্তু ঘটনার এক বছর অতিক্রান্ত হলেও ক্ষতিগ্রস্তরা কোন ক্ষতিপূরণ পায়নি।

মুক্তিপণ দাবিতে লালমনিরহাটে স্কুলছাত্র হত্যা

নিজস্ব সংবাদদাতা, লালমনিরহাট, ২০ জানুয়ারি ॥ জেলার হাতীবান্ধা উপজেলায় শিশু নিকেতন স্কুলের প্রথম শ্রেণীর ছাত্র উল্লাসের (৬) ঝুলন্ত লাশ উপজেলা ক্যাম্পাসের পরিত্যক্ত কক্ষ থেকে উদ্ধার করা হয়েছে। এই ঘটনায় মঙ্গলবার সাতজনকে আটক করেছে পুলিশ। দুপুরে তার সহপাঠী ও শিক্ষকরা হত্যাকারীদের শাস্তির দাবিতে বিক্ষোভ করে। মুক্তিপণ না পেয়ে অপহরনকারীরা তাকে হত্যা করে ঝুলিয়ে রাখে। পরে নিহতের বাবাকে এসএমএস’র মাধ্যমে লাশের খবর দেয়া হয়। পুলিশ জানায়, উপজেলার সিঙ্গিমারী গ্রামের ব্যবসায়ী নুরুজ্জামানের ছেলে হাতীবান্ধা শিশু নিকেতনের ১ম শ্রেণীর ছাত্র উল্লাস সোমবার সন্ধ্যার পর নিখোঁজ হয়। গভীর রাতে তার বাবার মোবাইলে এসএমএস’র মাধ্যমে জানানো হয় উল্লাসকে অপহরণ করা হয়েছে। তাকে জীবিত পেতে হলে এক লাখ টাকা মুক্তিপণ দিতে হবে। অপহরণকারীরা ডাচ বাংলা মোবাইল ব্যাংকয়ের একটি একাউন্ট নম্বর দেয়। টাকা দিতে দেরি হওয়ায় উল্লাসকে হত্যা করা হয়। আটককৃতরা হাতীবান্ধা এসএস হাই স্কুল এন্ড টেকনিক্যাল কলেজের ছাত্র বলে জানা গেছে।