১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

স্টার্ক-ওয়ার্নারে অস্ট্রেলিয়ার শুভসূচনা


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ কার্লটন মিড ত্রিদেশীয় ওয়ানডে সিরিজে শুভসূচনা করেছে স্বাগতিক অস্ট্রেলিয়া। পেসার মিচেল স্টার্কের চমৎকার বোলিং ও মারকাটারি ওপেনার ডেভিড ওয়ার্নারের দুরন্ত সেঞ্চুরির সৌজন্যে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ইংল্যান্ডকে ৩ উইকেটে হারিয়েছে অসিরা। সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডের প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ম্যাচে ৪৭.৫ ওভারে ২৩৪ রানে অলআউট হয় টস জিতে ব্যাটিং নেয়া ইংলিশরা। জবাবে ৩৯.৫ ওভারে ২৩৫ রান করে জয় তুলে নিলেও ৭ উইকেট হারাতে হয় অস্ট্রেলিয়ার! ৪২ রানের বিনিময়ে ৪ উইকেট নিয়ে জয়ের নায়ক স্টার্ক। বিফলে যায় ইংল্যান্ড অধিনায়ক ইয়ন মরগানের ১২১ রানের দুরন্ত সেঞ্চুরির ইনিংসটি। সিরিজের অপর দল বর্তমান বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ভারত। বিশ্বকাপ সামনে রেখে তিন মোড়লের ত্রিদেশীয় লড়াই ঘিরে বইছে দারুণ উন্মাদনা, যেখানে শুভসূচনা করল জর্জ বেইলির অস্ট্রেলিয়া।

সম্প্রতি পারফর্মেন্সের বিচারে ইল্যান্ড মোটেই ফেবারিট নয়। প্রথম ওভারেই ইংলিশ ব্যাটিংয়ের ভিত কাঁপিয়ে দেন স্টার্ক। দলীয় ভা-ারে কোন রান যোগ করার আগেই ইয়ান বেল ও জেমস টেইলরকে শূন্য হাতে সাজঘরে ফেরান অসি পেসার। দু’জনকেই এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলেন তিনি। ১২ রানে জো রুটকে (৫) তুলে নেন অপর পেসার প্যাট কুমিন্স। জেমস ফাকনার ২২ রান করা ইনফর্ম মঈন আলিকে যখন ফিরিয়ে দেন কার্যত চোখে সর্ষে ফুল দেখে ইংলিশরা। ১৫ ওভারে ৬৯ রানেই সাজঘরে শীর্ষ পাঁচ ব্যাটসম্যান। এরপরও ইংল্যান্ডের দুই শ’র ওপর স্কোরের রূপকার মরগান। ধ্বংসস্তূপের ওপর দাঁড়িয়ে কেবল প্রতিরোধই গড়েননি, দারুণ এক সেঞ্চুরি তুলে নেন ইংলিশ অধিনায়ক। ১৩৬ বলে ১১ চার ও ৩ ছক্কায় ১২১ রান করে স্টার্কের তৃতীয় শিকারে পরিণত হন তিনি। ১৩১তম ওয়ানডেতে মরগানের এটি সপ্তম সেঞ্চুরি। বড় তারকা এ্যালিস্টার কুককে সরিয়ে অধিনায়ক করা হয় মরগানকে, বিশ্বকাপে তিনিই নেতৃত্ব জবাবে খুব একটা স্বস্তিতে ছিল না অস্ট্রেলিয়াও। একপ্রান্তে স্বভাবসুলভ স্ট্রোকের ফুলঝুরি ছুটিয়েছেন ওর্য়ানার, অপর প্রান্তে উইকেট পড়েছে নিয়মিত বিরতিতে। দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে ওয়াটসন যখন ব্যক্তিগত ১৬ রান করে আউট হন দলের সংগ্রহ তখন ১২ ওভারে ৭১। তার আগে ১৫ রান করে ফেরেন ওপেনার এ্যারন ফিঞ্চ। ক্রিস ওকসের দুরন্ত বোলিংয়ের মুখে উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে অসিরা। টেস্ট অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথের ৩৭ ও শেষদিকে অভিজ্ঞ ব্যাড হ্যাডিনের ১৬ রান ছিল কার্যকর। তবে ব্যাট হাতে দারুণ জয়ের কারিগর ওয়ার্নারই। ১১৫ বলে ১৮ চারের সাহায্যে ১২৭ রান করে ওকসের শিকারে পরিণত হন তিনি। ৫১তম ওয়ানডেতে বাঁহাতি ওপেনারের তৃতীয় সেঞ্চুরি এটি। এর মধ্য দিয়ে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে নিজেদের শেষ ২২ ম্যাচে প্রথমবারের মতো কোন অস্ট্রেলিয়া ব্যাটসম্যান সেঞ্চুরি পেল! আর ব্যক্তিগতভাবে ৩০ ইনিংস পর ওয়ানডে সেঞ্চুরির দেখা পেলেন টেস্টে ফর্মের তুঙ্গে থাকা এই ওপেনার।

ইংলিশদের হয়ে ৪০ রানের বিনিময়ে ৪ উইকেট তুলে নেন পেসার ক্রিস ওকস। শুরুতেই ইংল্যান্ডকে ব্যাকফুটে ঠেলে দিয়ে ম্যাচের নায়ক স্টার্ক। ম্যাচ শেষে অসি পেসারের প্রশংসা করে অধিনায়ক জর্জ বেইলি বলেন, ‘এটা সত্য যে স্টার্কই পার্থক্য গড়ে দিয়েছে। প্রতিপক্ষকে ২৩৪ রানের বেঁধে রেখে শুরুতেই আমরা মানসিকভাবে এগিয়ে যাই।’

সংক্ষিপ্ত স্কোর ॥ ইংল্যান্ড ২৩৪/১০ (৪৭.৫ ওভার; মরগান ১২১, বাটলার ২৮, মঈন ২২, জর্ডান ১৭; স্টার্ক ৪/৪২, ফাকনার ৩/৪৭), অস্ট্রেলিয়া ২৩৫/৭ (৩৯.৫ ওভার; ওয়ার্নার ১২৭, স্মিথ ৩৭, ওয়াটসন ১৬, হ্যাডিন ১৬; ওকস ৪/৪০)। ফল ॥ অস্ট্রেলিয়া ৩ উইকেটে জয়ী।

ম্যাচসেরা ॥ স্টার্ক (অস্ট্রেলিয়া)।