১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

নওগাঁয় নারীর জন্য নারী


‘আর নয় নারী নির্যাতন, বাল্যবিয়ে বন্ধ কর। নারী নির্যাতন ও বাল্যবিয়েমুক্ত সমাজ গড়তে আমরা দৃঢ় প্রত্যয়ী।’ এমন প্রত্যয় নিয়ে সমাজে কাজ করে যাচ্ছেন, সামাজিক ক্ষমতায়ন কর্মসূচীর আওতায় পল্লী সমাজেরই সচেতন একঝাঁক নারী। বাল্যবিয়ে রোধ, নারী নির্যাতনমুক্ত সমাজ গঠন, নারীর ক্ষমতায়নসহ বিভিন্ন ইস্যুতে তারা কাজ করছে। নওগাঁর আত্রাই উপজেলায় এমনই প্রায় ৩০টি পল্লী সমাজ কাজ করে যাচ্ছে। একটি বেসরকারী উন্নয়ন সংস্থা আত্রাই শাখার সামাজিক ক্ষমতায়ন কর্মসূচীর আওতায় এই পল্লী সমাজ ইতোমধ্যেই উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় ব্যাপকভাবে জনসমাদৃত হয়ে উঠেছে। ইতোমধ্যেই উপজেলার শিমুলিয়া গ্রামের পল্লী সমাজের নারীরা ওই গ্রামকে বাল্যবিয়ে মুক্ত গ্রাম ঘোষণা করেছেন। এ উপলক্ষে সম্প্রতি তারা স্থানীয় উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ এবাদুর রহমানকে প্রধান অতিথি করে এক অনুষ্ঠানে ঠিক এমনটিই ঘোষণা দিয়েছেন। যার প্রভাব অন্যান্য গ্রামেও সাড়া জাগাতে সক্ষম হয়েছে।

আত্রাই উপজেলার ভোঁপাড়া ইউনিয়ন পল্লী সমাজের সভাপ্রধান মাহফুজা বেগম বলেন, ‘আর নয় নারীর প্রতি সহিংসতা’কে প্রতিপাদ্য করে বিভিন্ন সময়ে আমরা নারী নির্যাতন প্রতিরোধে, বাল্যবিয়ে প্রতিরোধ ও সামাজিক অন্যান্য বিষয়ে কর্মসূচী পালন করে থাকি। সভা সেমিনার র‌্যালিসহ জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে গণসংযোগও করে থাকি। শুধু র‌্যালি আর গণসংযোগ নয়, গ্রামে গ্রামে, পাড়ায় পাড়ায় এমনকি বাড়ি বাড়ি উঠোন বৈঠকের মাধ্যমেও প্রত্যন্ত এলাকার পিছিয়ে পড়া সহজ-সরল নারীদের সচেতন করে থাকি। এতে নারীদের কাছ থেকে সাড়াও মিলছে আশাতীতভাবে। তার মতে, নারীর সচেতনতা বৃদ্ধি না পেলে সামাজিক উন্নয়ন সম্ভব নয়।

এ ব্যাপারে ব্র্যাক আত্রাই শাখার সামাজিক ক্ষমতায়ন কর্মসূচীর মাঠ সংগঠক রেজাউল করিম সিদ্দিকী বলেন, আত্রাই উপজেলার ৩০টি গ্রামে আমাদের পল্লী সমাজ সংগঠন রয়েছে। এসব পল্লী সমাজের সদস্যগণ সামাজিক উন্নয়ন, নারী নির্যাতন ও বাল্যবিয়ে প্রতিরোধসহ বিভিন্নমুখী বিষয়ে বিভিন্ন কর্মসূচী পালন করে থাকেন। আর এ কর্মসূচীগুলোর মধ্য দিয়ে জনগণের মাঝে সচেনতা সৃষ্টি করা হয়। কিছুদিন আগে আত্রাইয়ের মির্জাপুর এলাকায় ধর্ষণ মামলার আসামি গ্রেফতারের দাবিতে তারা মানববন্ধন, নারী নির্যাতনমুক্ত সমাজ গড়তে ভোঁপাড়া ইউনিয়নে র‌্যালি ও আলোচনা সভাসহ প্রায় প্রতিটি পল্লী সমাজই এ জাতীয় কর্মসূচী পালন করে থাকে। আর এ কারণে সামাজিক জীবনে নারীদের অনেক উপকারও হচ্ছে।

প্রশাসনের সহায়তা ও বিভিন্ন স্তরের জনপ্রতিনিধিদের সার্বিক সহযোগিতা অব্যাহত থাকলে পল্লী সমাজের মাধ্যমে বাল্যবিয়ে ও নারী নির্যাতনমুক্ত আত্রাই গড়া খুবই সম্ভব বলে দাবি করেন তিনি।