১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

চাকরির উৎসাহ বিড়াল!


চাকরির উৎসাহ বিড়াল!

জাপানীরা কর্মব্যস্ত জাতি। সারাক্ষণ কাজ আর কাজ। একটানা কাজে অনেক সময়ই তাদের মাঝে সৃষ্টি হয় একঘেঁয়েমি। বোধ করেন ক্লান্তি। একটা সময় অনেকেই উৎসাহ হারিয়ে ফেলেন কাজের প্রতিই। এমন পরিস্থিতি থেকে রেহাই দেয়ার জন্যই জাপানের কিছু কোম্পানি বিড়াল নিয়ে এসেছে তাদের অফিসে। সুন্দর বিড়ালের মিষ্টি দুষ্টুমী ক্লান্তি ভূলিয়ে দিচ্ছে। ফেররে কর্পোরেশন একটি ইন্টারনেট সলুউশন কোম্পানি। এই কোম্পানিটি তাদের অফিসে নয়টি বিড়াল ছেড়ে দিয়েছে। বিড়ালগুলো অফিসের এ মাথা থেকে ও মাথায় ছুটে বেড়ায়। বিড়ালগুলো এতই আদুরে যে এগুলোকে আদর করে তাদের কাজের ক্লান্তি দূর হয়ে যাচ্ছে। অবশ্য বিড়ালের কারণে কিছু ভোগান্তির সৃষ্টি হচ্ছে। বিড়ালের ছোটাছুটিতে অনেক সময় মনোযোগ নষ্ট হচ্ছে, কাগজপত্র ছিঁড়ে যাচ্ছে, কম্পিউটারের তারে কামড় পড়ছে। বিড়াল সময়ে সময়ে হেঁটে যাচ্ছে কিবোর্ডের ওপর দিয়ে, এমনকি অনেক সময় গুরুত্বপূর্ণ মিটিং টেবিলের ওপর ঘুমিয়ে পড়ছে। তবে এই ঝামেলাগুলো সহ্য করছে কোম্পানিটি তাদের কর্মীদের কথা চিন্তা করেই। বিড়ালের কারণে কর্মীদের নিজেদের মধ্যে আন্তঃসম্পর্ক বৃদ্ধি পেয়েছে। কাজের গতি অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। কর্মীদের স্ট্রেস কমে যাচ্ছে। মোদ্দাকথা, অফিস পরিবেশের যান্ত্রিকতা থেকে কিছুটা হলেও মুক্তি পাচ্ছে কর্মীরা। আর এটা তাদের মাঝে প্রাণচাঞ্চল্য সৃষ্টি করে চাকরিতে আরও মনোযোগী হতে সাহায্যে করছে। ফেররে কর্পোরেশনের মতো আরও অনেক জাপানী কোম্পানি তাই দিনকে দিন অফিসগুলোতে বিড়াল সরবরাহ করছে। কর্মীদের নিজেদের বিড়াল অফিসে নিয়ে আসার জন্য উৎসাহ দিচ্ছে। এমনকি বিড়ালের জন্য পাঁচ হাজার ইয়েন বোনাসও প্রদান করছে।

ওডিটি সেন্ট্রাল অবলম্বনে

আরিফুর সবুজ

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: