১৮ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

নাশকতা দমনে সর্বোচ্চ কঠোর পদক্ষেপের সুপারিশ


সংসদ রিপোর্টার ॥ গণমাধ্যম খবর পেলেও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কেন হরতাল-অবরোধের নাশকতার খবর পায় না- তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে সংসদীয় কমিটি। ক্ষোভ প্রকাশ করে কমিটির সদস্যরা বলেছেন, হরতাল-অবরোধের নামে বিভিন্ন স্থানে হামলা, ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগ করছে সন্ত্রাসীরা। গণমাধ্যমে সেই ছবি প্রকাশিত হচ্ছে। গণমাধ্যম খবর পেলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কেন এই সন্ত্রাসী তৎপরতার খবর পাবে না? কমিটির পক্ষ থেকে গণমাধ্যমে প্রকাশিত ছবি দেখে সন্ত্রাসী চিহ্নিত করার পাশাপাশি তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করা হয়েছে। এছাড়া আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে সর্বোচ্চ কঠোর অবস্থান গ্রহণের পরামর্শ দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে জাতীয় সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ সুপারিশ করা হয়। কমিটির সভাপতি টিপু মুন্সির সভাপতিত্বে বৈঠকে কমিটি সদস্য স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, এ্যাডভোকেট শামসুল হক টুকু, ওমর ফারুক চৌধুরী, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, ফখরুল ইমাম ও কামরুন নাহার চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন। পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজি) শহিদুল হকসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উর্ধতন কর্মকর্তারাও বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

কমিটি সূত্র জানায়, বৈঠকে মাদকের ভয়াবহতা নিয়ে দীর্ঘ আলোচনা হলেও সর্বশেষ আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতির বিষয়টি উঠে আসে। কমিটির পক্ষ থেকে এ বিষয়ে মন্ত্রণালয়ের পদক্ষেপের কথা জানতে চান। এক পর্যায়ে কমিটির সদস্যরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে বিএনপি-জামায়াতের নামে সন্ত্রাসীরা কিভাবে নাশকতা চালাচ্ছে তা নিয়েও প্রশ্ন উত্থাপন করেন। এ সময় পুলিশ ও র‌্যাবের পক্ষ থেকে গৃহীত পদক্ষেপের কথা তুলে ধরা হলেও তাতে পুরোপুরি সন্তুষ্ট হতে পারেননি কমিটির সদস্যরা।

কমিটির সদস্যরা প্রয়োজনে সাংবাদিকদের কাছ থেকে তথ্য সংগ্রহ করে সন্ত্রাসীদের প্রতিহত করার পরামর্শ দিয়ে বলেন, যদি কোন সন্ত্রাসী তৎপরতার ছবি তোলা যায়, তাহলে তাদের প্রতিহতও করা সম্ভব।

বৈঠক শেষে কমিটির সভাপতি টিপু মুন্সি সাংবাদিকদের বলেন, আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনাকালে হরতাল-অবরোধ মোকাবেলায় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে সর্তক অবস্থানে থাকতে বলা হয়েছে। মানুষের জানমালের নিরাপত্তাকে অগ্রাধিকার দিয়ে কঠোর হস্তে সন্ত্রাসীদের দমন করতে বলা হয়েছে।

দেশের বিভিন্ন স্থানে ভাংচুর ও অগ্নিসংযোগের ঘটনাকে বিচ্ছিন্ন আখ্যায়িত করে কমিটির আরেক সদস্য ও সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শামসুল হক টুকু বলেন, জনগণের জানমালের নিরাপত্তা দিতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর যা যা করার দরকার তাই করবে। এতে একবিন্দুও কুণ্ঠাবোধ করবে না। সংসদীয় কমিটির পক্ষ থেকে সেই নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।