২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

বাংলাদেশ-মালয়েশিয়া বাণিজ্য ফোরাম গঠন করা হবে


বাংলাদেশ-মালয়েশিয়া বাণিজ্য ফোরাম গঠন করা হবে

অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বাড়াতে বাংলাদেশ-মালয়েশিয়া বাণিজ্য ফোরাম করা হবে বলে ঘোষণা দিয়েছেন বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ। একই সঙ্গে শুল্ক ও কোটামুক্ত সুবিধায় রফতানি করতে আগামী মার্চে মালয়েশিয়ার সঙ্গে বাংলাদেশ এফটিএ (ফ্রি ট্রেড এগ্রিমেন্ট) করবে বলে জানান বাণিজ্যমন্ত্রী।

মঙ্গলবার সকালে রাজধানীর সোনারগাঁও হোটেলে বাংলাদেশে সফররত মালয়েশিয়ার বিনিয়োগ ও বৈদেশিক বাণিজ্যমন্ত্রী দাতো শ্রী মুসতোবা মোহাম্মদের সঙ্গে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তোফায়েল আহমেদ।

ওই সময় তিনি বলেন, বাণিজ্য প্রসারের পাশাপাশি বিনিয়োগ বাড়াতে ব্যবসায়িক ফোরাম গঠনে সম্মত হয়েছে উভয় দেশ। এ ফোরামে ১০ জন করে দু’দেশের ২০ জন প্রতিনিধি থাকবে। আগামী মার্চে এ ফোরাম গঠন চূড়ান্ত করা হবে। দুই দেশের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের এসব বিষয় চূড়ান্ত করবে।

মন্ত্রী বলেন, মালয়েশিয়ায় রফতানি বাড়াতে এবং উভয় দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসারের জন্য আলোচনা করবে এই ফোরাম। এর মধ্যে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশ হিসেবে মালয়েশিয়ার বাজারে শুল্ক ফ্রি প্রবেশ চাওয়া হবে। এরই মধ্যে ১৯টি আইটেমে শুল্ক ফ্রি দিয়েছে মালয়েশিয়া। কোন কোন ট্যারিফ লাইনকে তারা এরই মধ্যে শুল্ক ফ্রি করে দিয়েছে। বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, মূলত কী করে ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার ঘটানো যায়, সেসব বিষয়ে দাতো মুসতোবা মোহাম্মদের সঙ্গে আলোচনা হয়েছে।

সাংবাদিকদের আরেক প্রশ্নের জবাবে বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, তাঁরা আলোচনা করেছেন, ফ্রি বাণিজ্য চুক্তি করার জন্য। মার্চ মাসে দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে এ বিষয়গুলো চূড়ান্ত করা হবে। মালয়েশিয়ার সঙ্গে বাংলাদেশের রয়েছে বিশাল বাণিজ্য ঘাটতি।

জানা গেছে, বাংলাদেশে প্রতি বছর মালয়েশিয়া থেকে প্রায় ২০০ কোটি ডলারের পণ্য কেনে। অন্যদিকে বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়ায় যায় সাড়ে ১৩ কোটি ডলারের পণ্য। রফতানির পরিমাণ কী করে আরও বাড়ানো যায় সে বিষয়েও আলোচনা করা হয়েছে। মালয়েশিয়ার বাণিজ্যমন্ত্রী বলেন, গত ডিসেম্বরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মালয়েশিয়া গিয়েছিলেন। সেখানে ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসারের বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। আমরা কূটনৈতিক এবং সরকারী কর্মকর্তাদের ভিসা মুক্ত করেছি। তিনি জানান, বাংলাদেশ-মালয়েশিয়ান বিজনেস ফোরাম দুই দেশের ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসারে অবদান রাখতে সক্ষম হবে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: