১৭ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৮ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

হেলথ টিপস্্


ঠোঁট সাধারণত হালকা গোলাপী বর্ণের হয়ে থাকে। গোলাপী রঙের ঠোঁটের কারণে একজন মহিলাকে যেমন সুন্দর দেখা যায়, তেমনি একজন পুরুষ ব্যক্তিত্ববান হয়ে ওঠে। তবে অনেকের ঠোঁট গোলাপী বর্ণের না হয়ে গাঢ় রঙের হয়ে থাকে। গাঢ় রঙের ঠোঁটকে ডার্ক লিপও বলা হয়। প্রাকৃতিকভাবে আপনার ঠোঁট যদি গাঢ় রঙের হয় তাহলে এ নিয়ে ভাবনাচিন্তা না করাই ভাল। তবে ঠোঁটের সঠিক যতেœর মাধ্যমে তুলনামূলক সজীব ও আকর্ষণীয় ঠোঁট গড়ে তোলা সম্ভব।

গাঢ় রঙের ঠোঁটের কারণসমূহÑ (ক) সূর্যের আলো সরাসরি ঠোঁটে পড়লে, (খ) এ্যালার্জিক প্রতিক্রিয়া, (গ) হাইপার পিগমেন্টেশন, (ঘ) নিম্নমানের কসমেটিকস্্ বা প্রসাধন সামগ্রী ব্যবহার করলে, (ঙ) তামাক জাতীয় পণ্য সেবন, (চ) অতিরিক্ত কফি পান করলে, (ছ) ডিহাইড্রেশন : ডিহাইড্রেশন শরীর ও ত্বককে ক্ষতিগ্রস্ত করে থাকে শুষ্ক করার মাধ্যমে। ধীরে ধীরে একটি সময় পর ঠোঁট গাঢ় বর্ণ ধারণ করতে পারে।

আপনার ঠোঁট যদি গাঢ় বর্ণের হয়ে থাকেÑ তবে লেবুর একটি পাতলা সøাইস বা টুকরার ওপর সামান্য পরিমাণে চিনি ছড়িয়ে দিতে হবে এবং এটি দিয়ে ধীরে ধীরে আপনার ঠোঁটের ওপর ঘঁষতে হবে, যা স্ক্রাবিং নামে পরিচিত। এভাবে ৩ মিনিট করে ৭ দিন পর্যন্ত এ পদ্ধতি চলবে। লেবুর রস প্রায়শ ব্যবহৃত হয় গাঢ় ত্বকের জন্য। এটি গাঢ় রঙের ঠোঁটের জন্যও ব্যবহৃত হয়ে থাকে।

এক চা চামুচ লেবুর রস, ৪ ফোটা মধু, ২ ফোটা গ্লিসারিন মিশিয়ে প্রতিদিন ঠোঁটে প্রয়োগ করতে হবে একটি নির্দিষ্ট সময়ের জন্য। এতে ঠোঁটের শুষ্কতা ও কালো দাগ দূর হবে। এছাড়া ঠোঁটের গাঢ় বর্ণের জন্য কিছু চিকিৎসা রয়েছে, যা গাঢ় বর্ণ দূর করতে সাহায্য করে থাকে। মনে রাখবেন ঠোঁটের চিকিৎসা অবশ্যই অভিজ্ঞতার আলোকে গ্রহণ ও প্রয়োগ করতে হবে।