২৩ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ছয় চলচ্চিত্রে মিতুল


স্টাফ রিপোর্টার ॥ এই সময়ের অন্যতম তরুণ চলচ্চিত্র অভিনেতাদের মধ্যে অন্যতম আফফান মিতুল। বাংলা চলচ্চিত্রে আফফান মিতুলের অভিষেক হয় ২০১৪ সালের শুরুর দিকে। বিভিন্ন প্রেক্ষাগৃহে গত বছর আফফান মিতুল অভিনীত মির্জা সাখাওয়াত হোসেন পরিচালিত ‘হরিজন’ এবং মাসুদ পথিক পরিচালিত ‘নেকাব্বরের মহাপ্রয়াণ’ চলচ্চিত্র দুটি মুক্তি পায়। দুটি চলচ্চিত্রই আলোচিত হয়। এতে মিতুলের চরিত্রও প্রশংসিত হয়। দুই চলচ্চিত্রের সাফল্যের পরপরই নতুন আরও ছয়টি চলচ্চিত্রে চুক্তিবদ্ধ হয়ে আলোচনায় আসেন তরুণ অভিনেতা আফফান মিতুল। চলচ্চিত্রগুলো হলো ফেরদৌস ওয়াহিদের ‘দুর্ধর্ষ অভিযান’, বোরহান উদ্দিন রনির ‘শ্রেষ্ঠ পিতা’, মাজহারুল ইসলাম সাগরের ‘সন্তানের আঘাতে মায়ের মৃত্যু, শহীদুল হক খানের ‘আমার পিরাণের কোন মাপ নাই’, তারেক মাহমুদের ‘চটপটি’ এবং আবুল খায়ের রফিকের ‘খরা ও নারী’। এর মধ্যে জাতীয় পুরস্কারপ্রাপ্ত শহীদুল হক খানের ‘আমার পিরাণের কোন মাপ নাই’ চলচ্চিত্রের শূটিং ইতোমধ্যে শেষ হয়েছে। এই চলচ্চিত্রে মিতুলের বিপরীতে অভিনয় করেছেন আরেক নবাগতা অভিনেত্রী রানী। বাকি চলচ্চিত্রে পাঁচ নবাগতা অভিনেত্রীর বিপরীতে অভিনয় করবেন মিতুল। এছাড়া মিতুল অভিনীত এবং ফারুক হোসেন পরিচালিত ‘কাকতাড়ুয়া’ চলচ্চিত্রটি এখন সেন্সরে। চলতি মাসের শেষের দিকে শুরু হবে আবুল খায়ের রফিকের ‘খরা ও নারী’ চলচ্চিত্রের শূটিং। এই চলচ্চিত্রে গ্রামের প্রভাবশালীর ছেলের চরিত্রে দেখা যাবে মিতুলকে। এছাড়া অন্য চলচ্চিত্রগুলোতেও ভাল অভিনয়ের সুযোগ রয়েছে। সবমিলে গত বছরের মতো চলতি বছরেও চলচ্চিত্রে ব্যস্ত সময় পার করবেন মিতুল। সাংবাদিকতা ও গণযোগাযোগ বিষয়ে স্নাতক অর্জনকারী সম্ভাবনাময় চলচ্চিত্র অভিনেতা মিতুলের জন্য শুভ কামনা।