২২ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট পূর্বের ঘন্টায়  
Login   Register        
ADS

ভাঙ্গুড়ায় রেলসেতুর গার্ডারের ধাক্কায় এজতেমা ফেরত ৩ যাত্রী নিহত


নিজস্ব সংবাদদাতা, পাবনা, ১২ জানুয়ারি ॥ বিশ্ব এজতেমা থেকে নীলফামারীগামী নীলসাগর আন্তঃনগর ট্রেনের ছাদে বাড়ি ফেরার পথে ভাঙ্গুড়া উপজেলার কৈডাঙ্গায় রেলসেতুর গার্ডারের ধাক্কায় তিন যাত্রী নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে পাঁচজন। নিহতরা হলেন, মাহতাব আলির ছেলে মাতব্বর (২৫), টানুর ছেলে জিয়া (২৪) ও ফিটুর ছেলে ছাইদুল (২২)। নিহতরা সবাই চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ থানার লোহাগারী এলাকার বাসিন্দা। আহত বাবু (২২), চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার লোহামারি গ্রামের আনোয়ারুল হকের ছেলে। অন্য আহতদের পরিচয় জানা যায়নি। মুমূর্ষু অবস্থায় আহতদের উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানান, ঢাকা থেকে উত্তরাঞ্চলগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনের ছাদে উঠে বেশকিছু যাত্রী আসছিল। বিশ্ব এজতেমার আখেরি মোনাজাত শেষে রাতে ঢাকা থেকে বিলম্বে ছেড়ে আসা নীলফামারীগামী আন্তঃনগর নীলসাগর ট্রেনটি ভোরে পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলার কৈডাঙ্গা রেলসেতু অতিক্রম করার সময়ে ছাদে ভ্রমণকারী যাত্রীরা রেলসেতুর গার্ডারের ধাক্কায় গুরুতর আহত হয়। এসময় ট্রেনের গার্ড ভোর ৫টায় নিকটবর্তী চাটমোহর স্টেশনে অজ্ঞান অবস্থায় আহতদের নামিয়ে দেন বলে জিআরপি পুলিশের এসআই হায়দার আলী জানিয়েছেন। চাটমোহর স্টেশন মাস্টার মোঃ মহিউদ্দিন ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, তিনজন মুসল্লির মাথায় মারাত্মক জখম ছিল। ট্রেনটি চাটমোহরের রেলবাজার স্টেশনে এসে থামলে আহতদের চিৎকারে স্থানীয়রা ট্রেনের ছাদ থেকে তাদের নামিয়ে আনে। এ সময় ছাদ থেকে তিন জনের মৃতদেহও উদ্ধার করা হয়। বিশ্ব এজতেমার যাত্রীর প্রচ- চাপে ট্রেনে উপচেপড়া ভিড়ের কারণে অসংখ্য মানুষ ছাদে ভ্রমণ করতে বাধ্য হয়। এ ব্যাপারে জিআরপি থানায় মামলা হয়েছে।

সম্পর্কিত:
পাতা থেকে: