১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

পড়ার বিষয় যখন ফার্মেসি


বর্তমানে বাংলাদেশে প্রায় ৩৫০টি ওষুধ প্রস্তুতকারক প্রতিষ্ঠান রয়েছে। যেখান থেকে উৎপাদিত ওষুধসমূহ দেশের সম্পূূর্ণ চাহিদা মিটিয়ে প্রায় ৭০টি দেশে রফতানি করছে। ওষুধ উৎপাদন, মাননিয়ন্ত্রণ ও বিপণনে ফার্মাসিস্টদের ভূমিকা অপরিসীম। বিভিন্ন সরকারী ও বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়ে এ বিষয়ে পড়ানো হয়। বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি অন্যতম। আসুন জেনে নেই এ বিষয়ে পড়ার বিস্তারিত।

যাত্রা হলো শুরু : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের অধ্যাপক মরহুম আলহাজ ড. এবিএম মফিজুল ইসলাম পাটোয়ারী ১৯৯৫ সালের ৭ এপ্রিল প্রতিষ্ঠা করেন ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে প্রতিষ্ঠাতার অন্যতম লক্ষ্য ছিল দরিদ্র, মেধাবী এবং আগ্রহী শিক্ষার্থীদের সময়োপযোগী ও আধুনিক বিষয়ে শিক্ষাদানের মাধ্যমে উপযুক্ত মানবসম্পদ হিসেবে সমাজে গড়ে তোলা। এরই প্রেক্ষিতে ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি ২০০৬ইং সালে ফার্মেসি বিভাগ চালু করে, যা বর্তমানে ফার্মেসি বিষয়ে শিক্ষাদানরত বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর মধ্যে অন্যতম।

ক্যারিয়ার : দেশে একমাত্র পেশাগত ডিগ্রী যা অর্জনের সঙ্গে সঙ্গে চাকরির নিশ্চয়তা প্রদান করে। সারা বিশ্বে ফার্মাসিস্টদের যথেষ্ট সঙ্কট রয়েছে। ফলে ফার্মাসিস্টরা দেশের বাইরে চাকরির ক্ষেত্রে অগ্রাধিকার পায়। বর্তমানে আমেরিকা, ইউরোপ, অস্ট্রেলিয়া, মধ্যপ্রাচ্যসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে আমাদের দেশের ফার্মাসিস্টরা সুনামের সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছেন। বিশ্বের বিভিন্ন উন্নত দেশ বাংলাদেশ থেকে ফার্মাসিস্টদের নিয়োগ করতে অত্যন্ত আগ্রহী।

সুযোগ-সুবিধা : ঢাকা ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির ফার্মেসি বিভাগে রয়েছে সুসজ্জিত ও আধুনিক যন্ত্রপাতি সংবলিত ৫টি ল্যাবরেটরি। যেখানে আধুনিক, সৃজনশীল ও বিভিন্ন জটিল বিষয় নিয়ে ছাত্ররা সর্বক্ষণিক গবেষণা করে থাকে। এই বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিষ্ঠার অন্যতম উদ্দেশ্য ছিল স্বল্প খরচে মেধাবী ছাত্রদের মানসম্পন্ন শিক্ষাদান। এছাড়াও ঢাকার বাইরের ছাত্রদের থাকার জন্য এখানে আবাসিক সুব্যবস্থা রয়েছে।

যা জানা প্রয়োজন : ভর্তির আগে খোঁজ নিন বিশ্ববিদ্যালয়টি বিশ্ববিদ্যালয়ের মঞ্জুরি কমিশনের কালো তালিকাভুক্ত কি না। কোন বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়েরই ঢাকা বাইরের কোন শাখার অনুমোদন নেই। এসব ক্যাম্পাসে ভর্তি হবেন না। বিশ্ববিদ্যালয়টি মানসম্মত কি না এবং প্রয়োজনীয় ও যোগ্যতাসম্পন্ন শিক্ষক আছেন কি না?

বিষয় নির্বাচনে সর্তক হোন, সে বিষয়ের চাহিদা আছে কি না? সেই সঙ্গে জেনে নিন বিশ্ববিদ্যালয়ে সে বিষয়ের শিক্ষক, ল্যাব ও ব্যবহারিক যন্ত্রপাতি আছে কি না। সর্বমোট খরচের হিসাবটি ঠিকঠাক জেনে নিন।

যোগাযোগ : বাড়ি ৪, সড়ক ১, ব্লক এফ, বনানী, ঢাকা-১২১৩। ফোন : ৯৮৫৮৭৩৪, ০১৯৩৯৮৫১০৬০।

ক্যাম্পাস প্রতিবেদক