১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

ড্র, না শেষ দিনের রোমাঞ্চ?


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ অস্ট্রেলিয়ানরা স্বভাবজাত আগ্রাসী। হারার আগে হেরে যেতে পছন্দ করেন না, শেষ বিন্দু দিয়ে শেষ রক্ষায় মরিয়া তারা। ক্রিকেটপ্রেমী মানুষ তা জানেন। ইতোমধ্যে ৩৪৮ রানের লিড, হাতে ৪ উইকেট। আজ সকালে ধুম-ধাম পিটিয়ে কয়েক ওভারে সেটি চার শ’ করার সুযোগ, সুযোগ দিনের প্রায় পুরোটা সময় সামনে রেখে ভারতকে অলআউট করে সিরিজের ব্যবধান ৩-০ করে নেয়ার। কিন্তু স্টিভেন স্মিথরা কি তা করবেন? প্রশ্নটা আসছে মেলবোর্নে আগের ম্যাচে শেষ পাঁচ ওভার না খেলে ড্র মেনে নেয়ায়Ñ যা মোটেই অসিদের মানসিকতার সঙ্গে যায় না! সুতরাং সিডনিতে শেষ টেস্টের শেষদিনে আজ আরও একটি ড্র, না ক্রিকেটেপ্রেমীদের কাক্সিক্ষত রোমাঞ্চ? উত্তরের ভার থাকবে দু’দলের ওপর, যেখানে বাড়তি রং চড়াতে পারে স্মিথের সাহসী সিদ্ধান্ত।

প্রত্যাশিতভাবে বোর্ডার-গাভাস্কার ট্রফি নিশ্চিত করেছে অস্ট্রেলিয়া। সাদা চোখে দেখলে অতীতের মতো হারই যেখানে ভারতীয়দের নিয়তি! কিন্তু এবারের দ্বৈরথটা মোটেই সাদামাঠা ছিল না। গোটা সিরিজ জুড়ে কখনও তরুণ ভারতীয়রা পরীক্ষা নিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার, কখনও বা কুলীন অসিদের কোণঠাসা করে ফেলেছে ভারত! সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে উভয় উভয়কে চ্যালেঞ্জ জানিয়েছেন দুই তরুণ সেনাপতি স্টিভেন স্মিথ ও বিরাট কোহলি। চতুর্থ দিন শেষে দ্বিতীয় ইনিংসে অস্ট্রেলিয়ার সংগ্রহ ৬ উইকেটে ২৫১। লিড ২ রান কম সাড়ে তিন শ’। প্রথম তিন দিন ব্যাটিং-বান্ধব হলেও চতুর্থ দিন বদলে গেছে সিডনির চরিত্র। শুক্রবার উইকেট পড়েছে ১১টি। দিনের শেষ ৪০ ওভারে অস্ট্রেলিয়ার জন্য আক্রমণাত্মক ফিল্ডিং সাজান ক্রেজি কোহলি। ফল মিলতেও দেরি হয়নি। দলীয় ৪৯৬ রানেই দুই তারকা ডেভিড ওয়ার্নার (৪) ও শেন ওয়াটসনকে (১৬) তুলে নেয় তারা। প্রথমে টেলএন্ডে ব্যাট হাতে ৫০ রানের মহাগুরুত্বপূর্ণ ইনিংস খেলে নিজেদের প্রথম ইনিংস ৪৭৫Ñএ টেনে নেয়ার পর কাল বল হাতেও দারুণ সফল স্পিনার রবিচন্দ্রন অশ্বিন। ওয়ার্নারকে ক্যাচ বানিয়ে ও ওয়াটসনকে পরিষ্কার বোল্ডআউট করে সাজঘরে ফিরিয়েছেন তিনি। বাকিরা যখন অশ্বিনের স্পিন-বিষে নীল তখন ব্যাট হাতে এক ধমক শাসনের রাজত্ব কায়েম করেন স্মিথ। ৭০ বলে ৮ চার ও ১ ছক্কায় ৭১ রান করে পেসার শামির শিকারে পরিণত হন অধিনায়ক। টি২০ স্টাইলে মাত্র ৩৯ বলে ৮ চার ও ৩ ছক্কায় ৬৬ রান করে তাকে ভাল সঙ্গ দেন তরুণ জো বার্নস। তিনিও অশ্বিনের শিকার। তার আগে ওপেনার ক্রিস রজার্সের ব্যাট থেকে আসে মূল্যবান ৫৬ রান। অশ্বিন একাই নেন ৪ উইকেট।

স্কোর ॥ অস্ট্রেলিয়া প্রথম ইনিংস ৫৭২/৭ ডিক্লে. (১৫২.৩ ওভার; স্মিথ ১১৭, ওয়ার্নার ১০১, রজার্স ৯৫, ওয়াটসন ৮১, মার্শ ৭৩, বার্নস ৫৮, হ্যারিস ২৫; শামি ৫/১১২, অশ্বিন ১/১৪২, যাদব ১/১৩৭) ও দ্বিতীয় ইনিংস ২৫১/৬ (৪০ ওভার; স্মিথ ৭১, বার্নস ৬৬, রজার্স ৫৬, হ্যাডিন ৩১; অশ্বিন ৪/১০৫, শামি ১/৩৩, ভুবনেশ্বর ১/৪৬)

ভারত প্রথম ইনিংস ৪৭৫/১০ (১৬২ ওভার; কোহলি ১৪৭, রাহুল ১১০, রোহিত ৫৩, অশ্বিন ৫০, ঋদ্ধিমান ৩৫; স্টার্ক ৩/১০৬, ওয়াটসন ২/৫৮, হ্যারিস ২/৯৬, লেয়ন ২/১২৩) ** চতুর্থ দিন শেষে।

সর্বাধিক পঠিত:
পাতা থেকে: