১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

শিল্পী কালিদাস কর্মকারের একক চিত্রপ্রদর্শনী


চিত্রশিল্পী কালিদাস কর্মকারের ‘পাললিক প্রত্যাবর্তন’ শীর্ষক ৭০তম একক চিত্রপ্রদর্শনী শুরু হয়েছে। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির আয়োজনে গত ৪ জানুয়ারি রবিবার বিকেল ৫টায় এ প্রদর্শনীর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আন্তর্জাতিকবিষয়ক উপদেষ্টা ড. গওহর রিজভী। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ এন্টারপ্রাইজ ইনস্টিটিউটের সভাপতি ফারুক সোবহান। সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী। অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন শিল্পী কালিদাস কর্মকার।

প্রদর্শনীতে বিভিন্ন মাধ্যমে করা প্রায় ১৫১টি চিত্রকর্ম স্থান পেয়েছে। এ্যাক্রেলিক, মিশ্রমাধ্যম, ডিজিটাল লিথোগ্রাফ, ড্রইং, মেটাল কোলাজসহ একাধিক বর্তমান বাস্তব সময়ের নিরিখে স্থাপনাশিল্পও রয়েছে প্রদর্শনীতে। একাডেমির জাতীয় চিত্রশালার মিলনায়তনে ১৩ দিনব্যাপী এ প্রদর্শনী আগামী ১৩ জানুয়ারি পর্যন্ত প্রতিদিন বেলা ১১টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত এবং শুক্রবার দুপুর ৩টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা থাকবে।

অন্যদিকে আঁলিয়স ফ্রঁসেজ দ্য ঢাকার লা গ্যালারিতে শুরু হয়েছে ‘পাললিক তাল’ শীর্ষক শিল্পীর একক চিত্রপ্রদর্শনী। গত ৫ জানুয়ারি সোমবার বিকেল ৫টায় প্রদর্শনীর উদ্বোধন করা হয়। প্রদর্শনীতে প্রায় ৩৫টি চিত্রকর্ম স্থান পেয়েছে। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চিত্রশিল্পী সমরজিৎ রায়চৌধুরী, দৈনিক ইত্তেফাকের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক তাসমিমা হোসেন এবং আন্তর্জাতিক শিল্প-সমালোচক সমিতির (আইকা) সভাপতি মারেক বার্তেলিক। প্রদর্শনীটি চলবে ১৬ জানুয়ারি পর্যন্ত। সোমবার থেকে বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টা থেকে রাত ৯টা এবং শুক্রবার ও শনিবার সকাল ৯টা থেকে বেলা ১২টা এবং বিকেল ৫টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত প্রদর্শনীটি সবার জন্য খোলা থাকবে। রবিবার সাপ্তাহিক বন্ধ।

শিল্পী কালিদাসের ছবিতে বর্তমান সময়, অবিশ্রান্ত, মানবীয় অভিজ্ঞতার সম্পর্কের ভাষামূর্ত হয়ে ওঠে বারবার। তাঁর ছবির শেকড়গাঁথা এ জনপদেরই মাটিতে প্রথিত। এ ভূখ-ের যাপনপ্রণালী, নানা ধর্মের সমন্বয়, লোকশিল্পের নানা প্রতীক উপাদান হিসেবে এসেছে শিল্পী কালিদাসের চিত্রকলায়। তাঁর চিত্রকলায় এ জনগোষ্ঠীর বিভিন্ন আন্দোলনের অনুসঙ্গ হয়ে এসেছে তাবিজ, কবচ আর কড়ি। কাগজের ম-ের পটভূমিতে কখনও চকিতে ধরা পড়েছে মৃত্যুমুখ মুক্তিযোদ্ধার যন্ত্রণাকাতর হাতের ইঙ্গিত। শিল্পী কালিদাসের চিত্রকলায় এসেছে আবহমান বাঙালীর নিঃশ্বাস, কিন্তু চিত্রকলার স্বভাব কোথাও ঢলে পড়েনি। শিল্পীর উচ্ছ্বাস, অভিব্যক্তি, শুদ্ধতা, বেদনা, স্মৃতি আর একাকিত্ব- এসবই যেন এক পাললিক শিল্পীর প্রত্যাবর্তন।

শিল্পী কালিদাস কর্মকার জন্মগ্রহণ করেন ১৯৪৬ সালে ফরিদপুর শহরের নিলটুলীতে। তিনি ১৯৬২-৬৪ তে ঢাকা ইনস্টিটিউট অব আর্ট থেকে ২ বছরের কোর্স শেষ করে ১৯৬৯ সালে কলকাতায় গভর্নমেন্ট কলেজ অব ফাইন আর্টস এবং ক্রাফট থেকে প্রথম বিভাগে প্রথম স্থান নিয়ে চারুকলায় স্নাতক ডিগ্রী লাভ করেন। এ পর্যন্ত তাঁর দেশে-বিদেশে নির্বাচিত চিত্রপ্রদর্শনীর সংখ্যা ৭০তম। তিনি বহু আন্তর্জাতিক দলবদ্ধ প্রদর্শনীতে অংশগ্রহণ করেছেন ও আন্তর্জাতিক সম্মান লাভ করেছেন। বাংলাদেশে ছাপচিত্র-শিল্পের প্রচার ও প্রসার আন্দোলনে গ্রাফিক্স আঁতেলিয়ার-’৭১-এর মাধ্যমে তাঁর ভূমিকা স্মরণযোগ্য। ভারত ছাড়াও পোলান্ড, ফ্রান্স, জাপান, আমেরিকাতে আধুনিক শিল্পের বিভিন্ন মাধ্যমে উচ্চতর ফেলোশিপ নিয়ে সমকালীন চারুকলা মাধ্যমে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেছেন তিনি। ১৯৭৬ সাল থেকে তিনি ফ্রিল্যান্স শিল্পী হিসেবে দেশে-বিদেশে কাজ করে আসছেন।