১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট এই মাত্র  
Login   Register        
ADS

শীতকালীন দলবদলের আলোচিত তারকা


স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ ইউরোপিয়ান দেশগুলোর ক্লাব আসরে শীতকালীন ট্রান্সফার শুরু হয়েছে শুক্রবার থেকেই। আজও বেশ কয়েকটি দেশের ক্লাব এ উইন্ডোর অধীনে চলে আসবে। এবারের ট্রান্সফারে বেশ কয়েকজন খেলোয়াড়কে কিনতে তুমুল দর কষাকষি হবে নামী কয়েকটি ক্লাবের মধ্যে। এর মধ্যে রীতিমতো ‘হটকেক’ হিসেবে ধরা হচ্ছে বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের ২৫ বছর বয়সী স্ট্রাইকার মার্কো রিয়াস, স্পোর্টিং লিসবনের ডিফেন্সিভ মিডফিল্ডার ২২ বছরের তরুণ উইলিয়াম কারভালহো, উরুগুয়ের ২৭ বছর বয়সী স্ট্রাইকার এডিনসন কাভানি, ২৬ বছর বয়সী আইভোরি কোস্টের সবচেয়ে নজর কাড়া স্ট্রাইকার উইলফ্রেড বোনি এবং নরওয়ের মাত্র ১৬ বছর বয়সী বিস্ময় কিশোর এ্যাটাকিং মিডফিল্ডার মার্টিন ওডেগার্ড। আর এ কয়েকজনের জন্যই ক্লাবগুলো প্রস্তুত হয়ে আছে। আর ইতোমধ্যেই চেলসি থেকে এসি মিলানে যাওয়া নিশ্চিত হয়ে গেছে আরেক বড় তারকা ফার্নান্দো টোরেসের।

জার্মানির হয়ে বিশ্বকাপজয়ী দলে থাকতে পারেননি রিউস। কারণ ইনজুরিতে ছিটকে পড়েছিলেন। এবার তাঁর দল বরুসিয়াও একেবারে বিচ্ছিরি পরিস্থিতিতে রয়েছে। কিন্তু রিউসের ফর্ম পড়তির দিকে যায়নি। বরং আকর্ষণীয় সাফল্যে উদ্ভাসিত হয়েছেন তিনি। পরিসংখ্যান করে দেখা গেছে এ্যাটাকিং মিডফিল্ডার পজিশনে খেলা ইউরোপের যে কোন ফুটবলারের চেয়ে এ মৌসুমে তিনি সবচেয়ে বেশি গোল করেছেন। গড়ে প্রতি দুই ম্যাচে একটি গোল আছে তাঁর। সে কারণে তাঁকে দলে নিতে এবার বরুসিয়ার চিরশত্রু বেয়ার্ন মিউনিখ ছাড়াও প্রস্তুত হয়ে আছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ও চেলসিও। তবে এদের চেয়ে রিউসকে দলে ভেড়ানোর ক্ষেত্রে আলোচনায় এগিয়ে গেছে অনেকদূর রিয়াল মাদ্রিদ। তাঁর সম্ভাব্য চুক্তির ফি হতে পারে ২৫ মিলিয়ন ইউরো। প্রতি ট্রান্সফার উইন্ডোতেই সবচেয়ে বড় আকর্ষণ হয়ে আসেন আর্সেনালের কোচ আরসেন ওয়েঙ্গার। এবার তাঁর কড়া দৃষ্টি স্পোর্টিং লিসবনের তরুণ কারভালহোর দিকে। ইতোমধ্যেই ওয়েঙ্গার জানিয়েছেন এ তরুণের জন্য যতটা প্রয়োজন সে পরিমাণ অর্থ ব্যয় করার জন্য আছে তাঁর কাছে। গত বিশ্বকাপে এ্যাঙ্গোলা বংশোদ্ভূত এ তরুণ পর্তুগালের হয়ে খেললেও তেমন কিছু করতে পারেননি। তবে পর্তুগীজ লীগে লিসবনের হয়ে দুর্দান্ত ফর্মে আছেন। তাছাড়া এবার চ্যাম্পিয়ন্স লীগেও আলো ছড়িয়েছেন তিনি। আর এসবই তাঁকে এবার ট্রান্সফারে অনেক দামী খেলোয়াড়ে পরিণত করেছে। তাঁর ট্রান্সফার ফি হতে পারে ২৫ মিলিয়ন ইউরোর কিছু বেশি।

ফ্রান্সে আসার পর তেমন সুবিধা করতে পারছেন না কাভানি। ১৮ মাস আগে প্যারিস সেইন্ট জার্মেইনে (পিএসজি) যোগ দিয়েছিলেন ২৭ বছর বয়সী এ উরুগুইয়ান তারকা। তখন থেকে ৪৮ ম্যাচ খেলে ২৩ গোল করেছেন। মাঠের বাইরেও চাপের মধ্যে আছেন তিনি বিবাহ-বিচ্ছেদের কারণে। তাই সবকিছু কাটিয়ে উঠতে এবার ফ্রান্স ছেড়ে যাওয়া জরুরী কাভানির জন্য। তাঁকে নিতে পিএসজি ৬৪ মিলিয়ন ইউরো খরচা করেছিল নেপোলির কাছে। কিন্তু গুঞ্জন উঠেছে এত বেশি মূল্যে কেনার যথার্থতা প্রমাণ করতে পারেননি তিনি। এ কারণে পিএসজি অন্তত ৫০ মিলিয়ন ইউরো পেলেই কাভানিকে ছেড়ে দিতে ইচ্ছুক। ট্রান্সফার উইন্ডোতে সবচেয়ে বড় চমক ১৬ বছর বয়সী নরওয়ের এ্যাটাকিং মিডফিল্ডার ওডেগার্ড। তাঁকে ইউরোপে বর্তমানে সবচেয়ে মূলব্যান মেধা হিসেবে বিবেচনা করা হচ্ছে। মাত্র ১৫ বছর ২৫৩ দিন বয়সে আন্তর্জাতিক ফুটবলে অভিষেক ঘটে তাঁর। তিনি দেশের ফুটবল ইতিহাসে সর্বকণিষ্ঠ ফুটবলার হয়েছেন এর মাধ্যমে। তাঁকে নিতে জোর লড়াইয়ে আছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, ম্যানচেস্টার সিটি, বেয়ার্ন মিউনিখের মতো দলগুলো। এছাড়াও নাম শোনা যাচ্ছে রিয়াল, আর্সেনাল ও লিভারপুলের। মূলত দুর্দান্ত পাসিং আর আক্রমণভাগে ভয়াল গতিটা তাঁর প্রতি সবার দৃষ্টি আটকে দিয়েছে। ইংলিশ প্রিমিয়ার লীগে সবচেয়ে বড় আগ্রহের নাম উইলফ্রেড বোনি। তাঁকে নিতে মূল লড়াই হবে ম্যানসিটি আর চেলসির মধ্যে। উভয় ক্লাবই বোনিকে দলে ভেড়াতে বিশাল অঙ্ক নিয়ে প্রস্তুত। তবে ফি ৩০ মিলিয়ন ইউরোর আশপাশেই থাকবে। এছাড়াও এ স্ট্রাইকারের জন্য যোগাযোগ করে যাচ্ছে রিয়াল। যদিও বোনির বর্তমান দল সোয়ানসি সিটির দাবি এখন পর্যন্ত কোন প্রস্তাব পায়নি তারা।