২০ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৪ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

যোগসাজশে শাহজিবাজারের দরপতনের অভিযোগ


অর্থনৈতিক রিপোর্টার ॥ স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই ও সিএসই) যোগসাজশে শাহজিবাজার পাওয়ারের শেয়ার দর পতন ঘটানো হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার উভয় স্টক এক্সচেঞ্জে কোম্পানিকে জরিমানার খবর প্রকাশিত হওয়ার পর থেকেই কোম্পানির দর ব্যাপকহারে কমতে থাকে। এরপরই বিভিন্ন বিনিয়োগকারী কোম্পানির দর কমাতে এটি প্রকাশ করা হয়েছে দাবি করেছেন।

জানা গেছে, সোমবার সকালে সিকিউরিটিজ আইন লঙ্ঘনের কারণে শাহজিবাজার পাওয়ার কোম্পানির সকল পরিচালককে ৪৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছেÑ এমন সংবাদ ঢাকা ও চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়। কিন্তু সংবাদটি বেশ পুরনো। গত বছরের ৩০ অক্টোবর ডিএসইর ওয়েবসাইটে একই সংবাদ প্রকাশ করা হয়। এতে বিনিয়োগকারীদের মনে বিভ্রান্তির সৃষ্টি হয়। পুরনো খবরকে নতুনভাবে প্রকাশ করায় কোম্পানির পরিচালকদের ভাবমূর্তিও ক্ষুণœœ হচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে। তাই সংবেদশীল একই সংবাদ বার বার প্রকাশের অন্য কোন উদ্দেশ্য আছে কি-না তা খতিয়ে দেখা উচিত বলে মনে করছেন বিনিয়োগকারীরা।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ পুঁজিবাজার বিনিয়োগকারী সম্মিলিত জাতীয় ঐক্যের সভাপতি রুহুল আমিন আকন্দ বলেন, উভয় স্টক এক্সচেঞ্জের ওয়েবসাইটে শাহজিবাজারের জরিমানার সংবাদটি প্রকাশ করা হয়েছে। স্টক এক্সচেঞ্জের এ ধরনের কাজ নীতিবহির্ভূত। এ ধরনের কর্মকা কোম্পানির ভাবমূর্তি ক্ষুণœœ করছে, পাশাপাশি বিনিয়োগকারীরা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন।

বিএসইসি সূত্রে জানা গেছে, গত বছরের ২৯ অক্টোবর ৫৩০তম কমিশন সভায় শাহজিবাজারের ব্যবস্থাপনা পরিচালকসহ সকল পরিচালককে জরিমানা করে বিএসইসি। যার পরিপ্রেক্ষিতে ৩০ অক্টোবর ডিএসইর ওয়েবসাইটে ওই একই সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছিল। এ বিষয়ে ডিএসইর এক পরিচালকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, শাহজিবাজারের পুরনো সংবাদ প্রকাশের বিষয়টি তার জানা নেই। এ ধরনের পুরনো খবর কেন প্রকাশ করা হয়েছে সে বিষয়ে খোঁজ নেয়া হবে বলে জানান তিনি। এ দিকে, এ বিষয়ে ডিএসইর আরেক পরিচালক শরীফ আনোয়ার হোসেন বলেন, বিষয়টি সম্পর্কে আমি কিছুই জানি না। আর একই সংবাদ বার বার প্রকাশের কোন কারণ নেই বলে জানান তিনি।

প্রসঙ্গত, সোমবার ডিএসইতে লেনদেন শুরু হওয়ার পর শাহজিবাজার পাওয়ারের শুরুর লেনদেন হয় ১৯৪ টাকায়। কিন্তু জরিমানার সংবাদটি প্রকাশের পর কোম্পানির শেয়ারের দর কমে সর্বশেষ ১৭০ টাকায় লেনদেন হয়।