১৯ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৬ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

ফরমালিন মেশানো দুধ বিক্রি হচ্ছে দিনাজপুরে


স্টাফ রিপোর্টার, দিনাজপুর ॥ গরুর দুধে বিষাক্ত কেমিক্যাল-ফরমালিন মেশানো হচ্ছে, এটা অনেকে জানেন না। আবার অনেকে জেনেও গরুর দুধ ছাড়তে পারছেন না। লাশ অথবা মানুষের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ সংরক্ষণ করতে পচনরোধক হিসেবে ফরমালিন ব্যবহার করা হয়। এটা এক ধরনের বিষাক্ত রাসায়নিক। এই বিষাক্ত ফরমালিন দুধ, মাছসহ খাদ্যসামগ্রীতে ব্যবহার করে এক শ্রেণীর মুনাফালোভী ব্যবসায়ী। এসব পচনশীল খাদ্যসামগ্রী মাসের পর মাস টাটকা রাখার জন্য এই বিষাক্ত ফরমালিন ব্যবহার করা হচ্ছে।

কিছুদিন দুধ ও মাছে ফরমালিন মেশানো প্রায় বন্ধ ছিল। কিন্তু আবারও মাছ ও দুধে অবাধে ফরমালিন মেশানো শুরু হয়েছে।

বর্তমানে দুধের ব্যাপক চাহিদা থাকায় ফরমালিন মেশানো গরুর দুধ দেদার বিক্রি শুরু হয়েছে। বাঁশেরহাটে দুধের আড়তে ক্রেতা সেজে বিক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, দুধে ফরমালিন মেশানোর কথা। অকপটে বলে ফেলেন গ্রামাঞ্চল থেকে ঢাকা পর্যন্ত দুধ নিয়ে যেতে অনেক সময় লাগে। এত সময় গরুর দুধ টাটকা রাখা সম্ভব নয়। দুধ নষ্ট হয়ে যায়। এ কারণে দুধে ফরমালিন দেয়া ছাড়া কোন বিকল্প নেই। ফরমালিন মিশ্রিত দুধ দিনের পর দিন রেখে দিলেও নষ্ট হয় না। এই আড়ত থেকে দুধ বাসা বাড়িতে, খাদ্য উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানে ও মিষ্টি তৈরির জন্য সরবরাহ করা হয়ে থাকে বলে বিক্রেতারা জানান।

বিক্রেতারা এই প্রতিনিধিকে এক নম্বর ও দুই নম্বর দুধ রয়েছে বলে জানান। এক নম্বর দুধেও ফরমালিন আছে, তবে তাতে পানি মেশানো হয় না। দুই নম্বর দুধে ফরমালিন ও পানি দুই-ই মেশানো হয়। বিভিন্ন ডেইরী ফার্মের মালিকগণ তাদের উৎপাদিত ফরমালিন মিশ্রিত দুধ প্যাকেটজাত করে নিজস্ব মিষ্টির দোকান, বিভিন্ন বাসা-বাড়িসহ প্যাকেটজাত করে বাজারে সরবরাহ করে যাচ্ছে।