২২ অক্টোবর ২০১৭,   ঢাকা, বাংলাদেশ   শেষ আপডেট ৭ ঘন্টা পূর্বে  
Login   Register        
ADS

নটর ডেম ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ যাত্রা হলো শুরু


যাত্রা শুরু করেছে বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় ‘নটর ডেম ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ’। দেশের শিক্ষাঙ্গনে নটর ডেম কলেজের সুনাম দীর্ঘদিনের। নটর ডেম কলেজের পাশাপাশি নটর ডেম ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশও দেশের শিক্ষা খাতে সেই সুনাম বজায় রাখবে বলে প্রত্যাশা নটর ডেম বিশ্ববিদ্যালয়টির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সবার। ২০১৩ সালের ২৯ এপ্রিল সরকারের অনুমোদন লাভ করে বিশ্ববিদ্যালয়টি। এরপর বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন নটর ডেম ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশকে শিক্ষা কার্যক্রম শুরু করার চূড়ান্ত অনুমোদন প্রদান করে চলতি বছরের ২ ডিসেম্বর। আপাতত সীমিত পরিসরে যাত্রা শুরু করেছে প্রতিষ্ঠানটি। কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, শুরুতে এর অনুষদ থাকবে তিনটি। এগুলো হলোÑ কলা, বিবিএ এবং আইন অনুষদ আর ডিপার্টমেন্ট থাকবে ৬টি। মোট ৪০০ ছাত্রছাত্রী এই প্রতিষ্ঠানে শিক্ষা লাভের সুযোগ পাবেন। পরবর্তীতে পর্যায়ক্রমে অনুষদ এবং আসনসংখ্যা বাড়ানো হবে। বর্তমানে ইউনিভার্সিটিটি চারটি বিভাগ নিয়ে যাত্রা শুরু করেছে। বিভাগগুলো হচ্ছে- বিবিএ, ইংরেজী, অর্থনীতি এবং আইন বিভাগ। নটর ডেম ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশের দর্শন হলোÑ নির্দিষ্ট সময়ে কম খরচে নৈতিকতা ও বুদ্ধিবৃত্তিক গঠনের সঙ্গে প্রত্যেক শিক্ষার্থীকে মানসম্পন্ন শিক্ষা প্রদান করে তাদের প্রাতিষ্ঠানিক জ্ঞানার্জনে সাহায্য করা। সুবিধাবঞ্চিত, মেধাবী আদিবাসী ও সংখ্যালঘুদের প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষ নজর থাকবে। বিশ্ববিদ্যালয়ের মূলমন্ত্র হলোÑ ‘দেখায় পারদর্শিতা ও কর্মে সৎসাহস’। রাজধানীর মতিঝিলে নটর ডেম কলেজ ক্যাম্পাসের দক্ষিণে এই ইউনিভার্সিটির ভবন স্থাপিত হবে। এই ক্যাম্পাসের আয়তন হবে ১.২ একর।

মিসবাহ বিন মোশাররফ। পড়ছেন নটর ডেম বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগে। কথা হয় প্রথম বর্ষের এই ছাত্রের সঙ্গে। তিনি বলেন, আমি গর্বিত যে, নটর ডেমের মতো একটি প্রতিষ্ঠানের প্রথম ব্যাচের শিক্ষার্থী হতে পেরেছি। আশা করি আমাদের পছন্দের বিশ্ববিদ্যালয়টি আমার পছন্দমতোই একদিন প্রথম সারিতে নাম লেখাবে। আমিও খুশি আমার পছন্দের বিশ্ববিদ্যালয়ে আমার পছন্দের বিষয়টি পেয়ে। প্রথম বর্ষের আরেক ছাত্রী ফারহা জিনাত প্রিয়া। তিনি বলেন, নটর ডেমে ভর্তি হতে পেরে আমি আনন্দিত। বর্তমানে নটর ডেম বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রদের পাশাপাশি ছাত্রীদেরও ভর্তির সুযোগ রয়েছে। নটর ডেম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ব্যাচের ছাত্রী হিসেবে আমি গর্বিত।

মাঈন উদ্দিন